কিভাবে ইংরেজি শিখবো ? তাড়াতাড়ি ইংরেজি ভাষা শেখার দারুন ৯টি উপায়

কিভাবে ইংরেজি শিখবো ? তাড়াতাড়ি ইংরেজি ভাষা শেখার দারুন ৯টি উপায় (How To Learn English Fast) নিয়ে আজকের আমাদের আর্টিকেলটি রয়েছে।

কিভাবে ইংরেজি শিখবো
তাড়াতাড়ি ইংরেজি শেখার উপায়।

তাই, যদি আপনিও ইংরেজি শেখার কথা ভাবছেন, তাহলে আজকের এই আর্টিকেলটি আপনার অবশই অনেক কাজে আসবে।

ইংরেজি হল শেখার জন্যে খুবই মজার একটা ভাষা।

আর, অন্যদিকে এটি হল বিশ্বের দ্বিতীয় সবথেকে বেশি অধ্যয়ন করা ভাষা। 

যদিও,আমরা অনেকেই ইংরেজি কিভাবে শিখবো, তাই নিয়ে মাথা খারাপ করে ফেলি। 

কিন্তু, আসলেই এই ইংরেজি ভাষাটা হল একটা তুলনামূলকভাবে সহজ ভাষা, তবে এটাকে দ্রুত শিখতে পারাটা কিন্তু একটু চাপের হতে পারে। 

কিন্তু, আমরা আপনাকে জানাচ্ছি যে, ইংরেজি শেখার সঠিক উপায় জানা থাকলে, আমরা কিন্তু সহজেই শিখে নিতে পারি এই ভাষাটি।

এই আর্টিকেলে আমরা এমন কিছু স্পেশাল কৌশলগুলো নিয়ে ধাপে ধাপে আলোচনা করবো, যার সাহায্যে আমরা দ্রুতই ইংরেজি ভাষা রপ্ত করে নিতে পারবো। 

দ্রুত এবং সহজে ইংরেজি শেখার ৯টি টিপস – (কিভাবে ইংরেজি শিখবো)

চলুন, তাহলে আমরা ,জেনে নিই, তাড়াতাড়ি ইংরেজি ভাষা শেখার উপায় সম্পর্কে।

১. হাতের কাছে যে ইংরেজি বই পাবেন, পড়ুন:

তা ক্লাসিক সাহিত্য, সংবাদপত্র, ওয়েবসাইট, ইমেল, কিংবা আপনার সোশ্যাল মিডিয়া ফিডই হোক না কেন- সমস্ত জায়গা থেকেই যতটা সম্ভব ইংরেজিতে লেখাগুলো পড়ুন। 

কারণ, নতুন নতুন ভাষা শিখতে ও কোনো ভাষাকে রপ্ত করতে পড়ার চেয়ে ভালো উপায় আর কিছু হতে পারে না। 

আপনি যখন একসাথে অনেক বিষয়বস্তু পড়তে থাকেন, তখন আপনার আগের শেখা অনেক শব্দগুলোও আপনার পুনরায় মনে পড়ে যায়। 

তাছাড়াও, আপনি নতুন নতুন শব্দ ও বাক্য গঠনের সাথেও পরিচিত হতে পারবেন। 

অন্যদিকে, আপনার ইংরেজি শব্দভান্ডার তৈরি করার জন্য নতুন শব্দ ও অভিব্যক্তি শেখাটাও খুব জরুরি। 

বিশেষত, ইংরেজির মতো ভাষায় যেখানে প্রচুর শব্দ রয়েছে, সেখানে সবার আগে নিজের শব্দভান্ডারগুলোকে মজবুত করাটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

২. বাস্তবে জীবন্ত মানুষের সাথে কথা বলুন:

ইংরেজি কিভাবে শিখবো, বললেই তো আর শেখা হয়ে যাবে না, তার জন্যে আপনাকে আত্মবিশ্বাসের সাথে এই ভাষাতে কথা বলাও শিখতে হবে। 

তাই, কথা যখন বলবেনই তখন সরাসরি আপনার সামনের ব্যক্তির সাথেই বলুন। 

আর, কথোপকথন না করতে পারলে, সে ভাষা শেখার অর্থ কি?  

আমরা যতই হোয়াটস্যাপ বা সোশ্যাল মিডিয়াতে ইংরেজিতে যতই টেক্সট করে থাকি না কেন, যতক্ষণ না আমরা সামনসাসমনি কিংবা সরাসরি কোনো মানুষের সাথে কথা বলছি, ততক্ষণ পর্যন্ত কোনোদিনই আমরা পরিষ্কারভাবে ইংরেজি বলা কিছুতেই শিখতে পারবো না। 

কারণ, তাৎক্ষণিক ভাব প্রকাশ করতে গেলে, আমাদের সেই ভাষার উপর দখল থাকাটা জরুরি। 

তাই, সমস্ত জড়তা কাটিয়ে আপনার পরিচিত মানুষের সাথে, ইংরেজি ভাষাতেই কথা বলা শুরু করুন। 

সেরকম মনে হলে, অবশ্যই কোনো স্থানীয় ভাষাভাষীদের খুঁজে ইংরেজিতে কথা বলার চেষ্টা করুন, কোনো কোর্সে ভর্তি হোন বা অনলাইনে ইংরেজি শেখার ক্লাস নিন।

৩. ইংরেজি ভাষার মিডিয়া গুলোকে অনুসরণ করুন:

ইংরেজি ভাষাতে দখল আনতে চাইলে, নিয়মিতভাবে ইংরেজি মিডিয়াগুলো দেখুন, শুনুন বা পড়ুন। 

এখন আপনি ভাবতেই পারেন যে, মিডিয়া দেখে কিভাবে ইংরেজি শিখবো,

তাহলে চলুন দেখে নিই, ইংরেজি মিডিয়া দেখে কার্যকরীভাবে ইংরেজি শেখার উপায়গুলো-

১. বিশ্বে অনেক জনপ্রিয় ম্যাগাজিন ও অনলাইন সংবাদপত্র ইংরেজি ভাষায় আসে। 

তাই, আপনার আঞ্চলিক ভাষার পরিবর্তে এই ইংরেজি অনলাইন ম্যাগাজিন বা সংবাদপত্রগুলো পড়ুন।

২. ইংরেজিতে এমন বহু পডকাস্ট রয়েছে, যেগুলো আপনি আপনার পছন্দের বিষয়ের উপর সহজেই  খুঁজে পেতে পারেন। 

ধরুন, আপনি রান্না করতে ভালোবাসেন, তখন আপনি বিভিন্ন রান্নার পডকাস্টের রেসিপিগুলো ইংরেজিতেই শুনুন। 

৩. আজকাল, অনলাইনে ইংরেজিতে প্রচুর টিভি শো, ওয়েব সিরিজ কিংবা চলচ্চিত্রগুলো রয়েছে, যা থেকে আপনি আঞ্চলিক ইংরেজি ভাষার ব্যবহার ও বাচনভঙ্গি সম্পর্কেও জানতে পারবেন। 

এমনকি, আপনি সাবটাইটেল ব্যবহার করে ও সাবটাইটেল বন্ধ করে ইংরেজি শোনা ও বোঝার চেষ্টা করেও এই ভাষা শিখতে পারেন। 

আর চেষ্টা করবেন যে, যখনই সম্ভব সিনেমা দেখার সময় ইংরেজিতে সাবটাইটেল রাখার চেষ্টা করুন। 

এছাড়াও, এখন অনেক স্মার্টফোন অ্যাপ রয়েছে, যেখান থেকে ইংরেজি কেন আপনি যেকোনো ভাষাই শিখতে পারবেন।

৪. সক্রিয়ভাবে নতুন শব্দভান্ডারের নোট নিন:

কিভাবে ইংরেজি ভাষা শিখবো- এই চিন্তা মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলুন। 

আর, শেখার সময়, নতুন নতুন লেখা শব্দগুলো লিখে রাখার চেষ্টা করুন। 

আমরা প্রায়শই নতুন শব্দগুচ্ছ শেখার উৎসাহে ভাবি যে, আমরা সবকিছু মনে রাখতে পারবো। 

কিন্তু, আদতেই তা সবসময় সম্ভব হয় না। 

তাই, যাতে আপনার শেখা ইংরেজি শব্দ বা বাক্যগুলো আপনি ভুলে না যান, তাই জন্যে সবসময় আপনার কাছে একটা নোটবুক রাখুন।

যখনই আপনি কোনো নতুন শব্দ বা অভিব্যক্তিগুলো দেখবেন, শুনবেন বা পড়বেন, সেগুলোকে লিখে রেখে, তার মানে ও ব্যবহারের প্রসঙ্গ সম্পর্কেও দুচার কথা লিখে রাখুন, যাতে আপনার সহজেই সেগুলো মনে পড়ে যায়।

৫. নিয়মিত অভ্যাস করুন:

দ্রুত ইংরেজি শেখার জন্যে নিয়মিত অভ্যাস করাটা একান্তই জরুরি। 

কিন্তু, শুধুমাত্র প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়ে কাজ নেই। 

কারণ, আপনাকে ভাষাটা মন থেকে শিখে দক্ষতার সাথে সেটাকে সারাজীবন কাজে আসবে এইভাবে শিখে নিতে হবে। 

তাই, আপনাকে প্রবল ইচ্ছাশক্তি নিয়ে প্রতিদিন সময় ধরে নতুন নতুন করে ইংরেজি ভাষার চর্চা ও অনুশীলন করতে হবে। 

তবে, যখন কেউ আমাদের উপর কোনো বিষয়ে নির্ভরশীল থাকে, তখন আমাদের প্রায় সকলের মধ্যেই নতুন কিছু শেখার বিশেষ অনুপ্রেরণা তৈরী হয়। 

তাই, আপনি এমন কোনো মানুষকে খুঁজুন, যিনি নিয়মিতভাবে আপনার মতোই ইংরেজি শিখছে, যাতে তার সাথে আপনি নিজের তুলনা করে দেখে আপনার ইংরেজি শেখার দক্ষতাটাকে পরীক্ষা করতে পারেন। 

কিংবা, আপনি আপনার পছন্দমতো একজন গৃহশিক্ষককেও ইংরেজি ভাষা শেখার জন্যে নিয়োগ করতে পারেন। 

এছাড়াও, এমন কাউকে খুঁজতে পারেন, যার সাথে আপনার ভালো যোগাযোগ তৈরী হতে পারে বলে আপনি মনে করছেন। 

এরকম মানুষের সাহায্যে আপনি কিন্তু অনেকটাই সহজে ইংরেজি ভাষাটা শিখতে পারবেন বলে আশা করা যায়। 

৬. ভাষা শিক্ষার্থীদের কম্যুনিটি খুঁজুন:

আপনি যখন ইংরেজি শেখার আরও সহজ দিকগুলো খুঁজে বের করার চেষ্টা করেন, তখন আপনার অভিজ্ঞতা, সাফল্য ও হতাশা আপনারই মতো ইংরেজি শিখতে চাইছে এমন মানুষদের সাথে ভাগ করে নেওয়াটা বেশ অনুপ্রেরণাদায়ক হতে পারে। 

আর, আপনি যদি নিজে নিজেই এই ভাষাটি শিখতে চান কিংবা অভ্যাস করতে চান, তাহলে আপনি নানান ইংলিশ লার্নার কম্যুনিটির সাথে যুক্ত হতে পারেন। 

এইখানে আপনি আপনার মানসিকতার মানুষজনদের সাথে নিজের অভিজ্ঞতা ভাগ করে নেওয়ার পাশাপাশি, তাদের অভিজ্ঞতা থেকেও ইংরেজি ভাষা সহজে শেখার উপায়গুলোও জানতে পারবেন। 

কয়েকটি সেরা ইংরেজি লার্নার কম্যুনিটির কথা আলচনা করা হল – 

  • Reddit’s ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ ফোরামে চেষ্টা করুন
  • Preply’s প্রশ্নোত্তর বিভাগে কঠিন প্রশ্নের উত্তর খুঁজুন
  • ESL Learners-দের সর্বজনীন ফেসবুক গ্রুপ অনুসন্ধান করুন

৭. শুধু ব্যাকরণের নিয়ম মুখস্থ করার কোনো কারণই নেই:

ভাষা শিক্ষার জগতে, অনেক মানুষই বিশ্বাস করে যে, যেকোনো ভাষাতেই সঠিক ব্যাকরণের ব্যবহার সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। 

আর, সকলকেই তা ভালোভাবে রপ্ত করতে হয়। 

আবার, অনেকের ধারণা হল, যে ভাষা শেখার সময়ে ব্যাকরণ সহায়ক হলেও, এটা আসলে একটা সামগ্রিক ভাষার ছোট অংশ মাত্র। 

তবে, ইংরেজি ভাষা শেখা ও বলার ক্ষেত্রে দ্বিতীয় ধারণাটা কিন্তু মোটামুটি সঠিকই। 

কারণ, অনেক মানুষই মনে করে যে, ভাষার ক্ষেত্রে ব্যাকরণের নিয়মগুলো হল বেশ অস্পষ্ট, প্রায়শই ভাঙা-ভাঙা এবং সাধারণত ব্যতিক্রমগুলোর তালিকা ও এর বিশেষ ব্যবহারের ক্ষেত্রেই কেবল মনোযোগ দেওয়া উচিত। 

এছাড়াও, সময় পাল্টানোর পাশাপাশি ইংরেজির মতো সার্বজনীন কথ্য ভাষাও ক্রমাগত পরিবর্তিত হয়ে চলছে। 

তাই, ব্যাকরণ নিয়ে মাথা ঘামানোর প্রয়োজন আছে কি নেই, সেই বিষয়ে সম্ভবত কিছু বলা না গেলেও, ইংরেজি বলার বিষয়ে খুব বেশি ব্যাকরণ নিয়ে ভাবার কোনো কারণই নেই। 

তাই, মনে করার কিছু নেই যে, শুধু ব্যাকরণের নিয়মগুলো মুখস্থ না করে, ইংরেজি বলা যায় না। 

এক্ষেত্রে, আপনি কথা বলার সময়ে আপনার সঠিক ভাব প্রকাশ হচ্ছে কিনা, সে বিষয়ে নজর রাখতে হবে।     

৮. আপনি কীভাবে ইংরেজি ব্যবহার করবেন, সে সম্পর্কে ভাবুন:

এখানে আপনার ইংরেজি শেখার কারণই কিন্তু আপনার শেখার গতির উপর প্রভাব ফেলতে পারে। 

যেমন- আপনি বিদেশে ব্যবসা, ভ্রমণ, চাকরি কিংবা পড়াশোনার জন্য ইংরেজি শিখতে চাইছেন। 

এখন, আপনি ইংরেজি কেমন পরিস্থিতিতে ব্যবহার করবেন সে বিষয়ে চিন্তা করুন। 

ধরুন, আপনি যদি পড়াশোনা করেন, তবে আপনি দীর্ঘ লেকচার শুনে ও স্পীকারকে অনুসরণ করে নোট নেওয়ার জন্যে ইংরেজি শিখতে চাইছেন। 

কিংবা, ভ্রমণের জন্যে হলে আপনাকে বিভিন্ন পরিস্থিতিতে যে কথা বলতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করবেন, সেগুলো শিখতে পারেন। 

আপনি যদি ফোনে কারোর সাথে কথা বলার জন্যে এই ভাষা শিখতে চান, তাহলে আপনাকে ফোনে কারোর কথা শুনে কেবলমাত্র যথাযথভাবে উত্তর দিলেও চলবে। 

এই সবকটা পরিস্থিতি একে অন্যের থেকে আলাদা, অর্থাৎ এর জন্যে আপনাকে সম্ভবত কমবেশি ইংরেজিতে পড়াশোনা, লেখা ও বলা অভ্যাস করতে হবে। 

এর জন্যে আপনি ইউটিউবে নানান ইংলিশ শেখানোর চ্যানেলগুলোও দেখতে পারেন।

৯. নিখুঁত হওয়ার চেষ্টা করবেন না। কেউই নিখুঁত নয়।

আমাদের ইংরেজি শেখার ব্যাপারে সবথেকে বড় চ্যালেঞ্জ হল আমাদের একটা অদ্ভুত ভয়- যে ইংরেজি ঠিকমতো না জানার জন্যে যদি কেউ আমাদের মূর্খ মনে করে! 

তাই, কিভাবে ইংরেজি ভাষা শিখবো- তা নিয়ে না ভেবে আমাদের উচিত আত্মবিশ্বাসের সাথে ঠিকভুল যেভাবেই হোক ইংরেজিতে কথা বলা শুরু করা। 

আমাদের মধ্যে এমন অনেকেই রয়েছে, যারা তাদের মাতৃভাষাতে দারুণ তুখোড়। 

কিন্তু, ইংরেজি বলতে গেলেই সব গুলিয়ে ফেলে। 

আসলে, এটা ইংরেজি ভাষা না জানার ফল নয়, বরং এই ব্যাপারটা ইংরেজি বলতে পারবো কি পারবো না- সেই বিষয়েরই চাপা উদ্বেগের ফলাফল। 

তবে, একটা ভাষা শেখার ক্ষেত্রে ভুল হওয়াটা খুবই স্বাভাবিক একটা ব্যাপার। 

তাই, শেখার সময়ে ভুল করলে একদম লজ্জা বা ভয় পাবেন না। 

ধীরে-ধীরে ইংরেজি বলার অভ্যাস তৈরী হয়ে গেলে, আপনি তখন নিজে থেকেই ঠিকভুল বিচার করে শব্দের ও ব্যাকরণের ব্যবহার বুঝে যাবেন। 

এছাড়াও, মনে রাখবেন যে, যেকোনো ভাষার প্রধান কারণই কিন্তু কথার মাধ্যমে যোগাযোগ ঘটানো বা অনুভূতির প্রকাশ করা। 

তাই, বাক্যে যতই ভুল থাকুক, আপনি যদি সঠিকভাবে অন্য ব্যক্তিকে আপনার মনের ভাব প্রকাশ করে বলতে পারেন, তাহলে তো চিন্তার কোনো বিষয়ই নেই। 

এরপর, পেশাদারি কায়দাতে সঠিক ও ঝরঝরে ইংরেজি বলতে চাইলে তো অবশ্যই একটানা অভ্যাসের প্রয়োজন হবে।

এখানে আমরা আপনাদের সুবিধার জন্যে ইংরেজি শেখার বেশ কিছু সেরা অ্যাপ, ওটিটি ও ইউটিউব চ্যানেলের লিঙ্ক দিয়ে দিলাম –

ইংরেজি শেখার আন্ড্রয়েড অ্যাপ:

ইউটিউব চ্যানেল:

  • BBC Learning English
  • Speak English With Mr. Duncan
  • Easy English

আমাদের আজকের কিভাবে ইংরেজি শিখবো নিয়ে লেখা আর্টিকেলটি এখানেই শেষ হল। 

লেখাটি পছন্দ হলে অবশ্যই তা কমেন্টের মাধ্যমে জানাবেন।

 

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top
Copy link