ছেলেদের কিভাবে প্রপোজ করতে হয় – (সেরা নিয়ম এবং উপায়)

ছেলেদের কিভাবে প্রপোজ করতে হয় ? যদি আপনিও এই প্রশ্নের উত্তর জেনেনিতে ইচ্ছুক, তাহলে অবশই এই আর্টিকেল সম্পূর্ণ পড়ুন।

কি? প্রতিদিন ঘুম থেকে ওঠেন, আর মনের মধ্যে সারাক্ষণ খচখচানি চলতে থাকে ? 

উঠতে-বসতে-শুতে-জাগতে, একটা ছেলের চেহারাই সারাক্ষণ চোখের সামনে ভাসতে থাকে ? 

কিংবা, আপনি কি সারাদিন তার টেক্সটের আশায় বসে বসে দীর্ঘশ্বাস ছাড়ছেন ? 

তবে, গ্যারেন্টিড আপনি সেই ছেলের প্রেমে এক্কেবারে হাবুডুবু খাচ্ছেন,

কিন্তু সবকিছু জেনে-শুনেও বুঝতে পারছেন না যে, কিভাবে তাকে জানাবেন মনের কথা বা কিভাবে তাকে প্রপোজ করবেন ? 

তাহলে আর কোনো চিন্তা করবেন না! 

কারণ, আমরা আমাদের এই আর্টিকেলে হাজির করেছি, ছেলেদেরকে প্রপোজ করার নিয়ম – সেই বিষয় সম্পর্কে ১১টি সেরা পদ্ধতি। 

যা থেকে আপনি খুব সহজেই আপনার মনের ভাব আপনার পছন্দের ছেলেটিকে আজই এক্সপ্রেস করে দিতে পারবেন। 

চলুন, আর দেরি না করে, দেখে নেওয়া যাক যে, ছেলেদের কিভাবে প্রপোজ করা যায় ?

ছেলেদের প্রপোজ করার সেরা ১১টি উপায়:

ছেলেদের কিভাবে প্রপোজ করতে হয়

প্রথমেই জেনে রাখুন যে, প্রপোজ করা কিন্তু আসলেই এক ধরণের আর্ট।

তাই, এই আর্টিকেলে আমরা আপনার স্বপ্নের ছেলেটিকে প্রপোজ কিভাবে করবেন তার জন্যে সেরা কতগুলো আর্টিস্টিক ও অব্যর্থ উপায় আমরা বলে দিলাম –

১. গিফ্ট দিয়ে প্রপোজ করুন:

যে ছেলেটার প্রতি আপনার দীর্ঘদিন ধরে ফিলিংস আছে, তার পছন্দ-অপছন্দগুলো আপনার জানাটাই উচিত। 

আর, তাও আপনার যদি সন্দেহ থাকে, যে কি গিফ্ট দেবেন, তাহলে জানবেন যে ছেলেরা ঘড়ি, পার্স বা কোনো গ্যাজেটের ব্যাপারে বেশ আগ্রহী থাকে। 

তাই, আপনার জীবনের স্বপ্নের মানুষটিকে কোনো ভালো গ্যাজেট দিয়ে প্রপোজ করার প্ল্যান করতেই পারেন। 

আপনি তাকে কোনো ব্র্যান্ডেড ঘড়ি গিফ্ট করে সরাসরি তার বাড়িতে ডেলিভার করে দিতে পারেন, সাথে নোটস দিতে পারেন যে, ‘ঠিক এই ঘড়িটার প্রতিটা কাঁটার মতো, আপনিও তার জীবনে সবসময় থেকে যেতে চান।‘

এছাড়াও, কোনো লাক্সারি পারফিউম গিফট করেও তাকে প্রপোজ করতে পারেন। 

যাতে, সেই সুগন্ধির গন্ধ পেলেই আপনার ও আপনার প্রপোজের কথা তার মনে পড়ে যায়। 

২. ফোনের মাধ্যমে প্রপোজ করুন:

আমরা প্রায়শই রিজেকশনের ভয়ে সামনাসামনি প্রপোজ করতে পারিনা। 

তাই, আপনি যদি সামনাসামনি প্রপোজ করতে দ্বিধাবোধ করেন, তাহলে নিঃসন্দেহে ফোনের মাধ্যমে প্রপোজ করুন। 

তবে, ফোনে প্রপোজ করার সময়ে বেশি জটিলভাবে বিষয়টাকে উপস্থাপিত করবেন না।

কারণ, যে মানুষটিকে আপনি প্রপোজ করতে চলেছেন, সে আপনাকে দেখতে পাচ্ছে না। 

তাই, যতটা সম্ভব কথার মধ্যে আবেগ এনে নিজের মনের অনুভূতিগুলো স্পষ্টভাবে বোঝানোর চেষ্টা করুন। 

তবে, প্রেম প্রস্তাব দেওয়ার সময়ে নিজের কথাবার্তা এমনভাবে বলবেন না, যেটা আপনার চরিত্রের সাথে একেবারেই যায় না। 

আপনি যদি সিরিয়াস মানুষ হন, তাহলে সেক্ষেত্রে প্রেমের ব্যাপারটা সিরিয়াস ভঙ্গিতেই বলবেন, যাতে আপনার মনের ভাবটা ফোনের অন্য প্রান্তে থাকা মানুষটার কাছে সঠিক ইঙ্গিত বয়ে নিয়ে যায়।

আপনার যদি মন উদ্বিগ্ন থাকে, তাহলে সেক্ষেত্রে প্রপোজ করার সময়ে নিজের গুরুত্বপূর্ণ কথা বলার পয়েন্টগুলো লিখে নিন, যাতে প্রস্তাব দেওয়ার সময় আপনার মনের কোনো কথাই বাদ না পড়ে যায়। 

এছাড়াও, কোনো রোমান্টিক বৃষ্টির দিনেও তাকে আপনি ফোন করে আপনার মনের কথা জানাতেই পারেন! 

সবার আগে, তাকে জানাতে ভুলবেন না যে আপনার লাইফে সে কতটা স্পেশাল ও আপনি তার কাছে থাকলে কতটা নিরাপদ বোধ করেন!

৩. গান গেয়ে প্রপোজ করুন:

শুনতে পাক্কা বলিউডি মুভির প্লট লাগলেও, আপনি যদি ভালো গান করেন আর আপনার স্বপ্নের পুরুষটিও যদি আপনার গানের দিওয়ানা হয়, তাহলে প্রপোজ করার জন্যে গানের থেকে আর ভালো আইডিয়া কিইবা হতে পারে?

তাই, নার্ভাস না হয়ে, গেয়ে ফেলুন তার পছন্দের কোনো রোমান্টিক গান।

আপনি কোনো খোলা জায়গাতে গিয়ে নিভৃতে তাকে তার প্রিয় গান শুনিয়ে, রোমান্টিক কথা ও কবিতা বলে একটা প্রেম-প্রেম পরিবেশ তৈরী করেও মনের কথা বলতেই পারেন।

আর, একটু ড্রামা চাইলে, কোনো বার বা পাবে আপনার প্রিয় মানুষটাকে নিয়ে যান, সেখানে স্টাফের সাথে কথা বলে কোনো সারপ্রাইস  ক্যারিওকির মাঝখানে উঠেও তাকে গান গেয়ে প্রপোজ করতেই পারেন। 

চয়েসটা পুরোটাই আপনার!

৪. ঘুরতে গিয়ে প্রপোজ করুন:

ট্রাভেলিং কাপেলস আর হ্যাপি কাপেলস।

তাই, আপনার ভালোবাসার মানুষটা ও আপনি যদি ভ্রমণ পিপাসু হন। 

তবে তো অবশ্যই ভ্রমণের সময়ে প্রপোজ করাটা হতে পারে আপনার জন্যে বেস্ট আইডিয়া। 

প্রথমত, আপনার স্পেশাল মানুষটার জন্যে তার প্রিয় জায়গাতে একটা সারপ্রাইস ভ্যাকেশনের প্ল্যান করুন, অবশ্যই তার ও আপনার ফাঁকা সময় দেখেই করবেন, তা নাহলে তো কোনো কথাই নেই। 

যাইহোক, তাকে ভ্যাকেশনে নিয়ে যান আর একটা সারপ্রাইস প্রপোসালের ব্যবস্থা করুন। 

আপনি সেই ডেস্টিনেশনের স্পেশাল কোনো স্পটে নিয়ে গিয়েও তাকে আপনার ফিলিংস-এর ব্যাপারে সরাসরি বলে ফেলতে পারেন।

আর, প্রপোজ করার সময় মনে করে ছোট হলেও কোনো গিফ্ট অবশ্যই নিয়ে যাবেন।    

৫. চিঠি দিয়ে প্রপোজ করুন:

যতই ফোন, মেসেজ, ভয়েস বা ভিডিও কল আসুক না কেন, চিঠির মতো রোমান্টিক কি আর কিছু হয়? 

আমাদের তো মনে হয় না! 

চিঠির মাধ্যমে মনের অনুভূতির প্রকাশের একটা আলাদাই চার্ম আছে।

আর, সেই লাকি বয়টা যদি রোমান্টিক মেজাজের হয়, তাহলে তো আর কথাই নেই! 

সরাসরি একটা চিঠি লিখেই প্রোপোজ করে দিন। 

আর, বিশ্বাস করুন বা না করুন, লেখার মাধ্যমে মনের অনুভূতি বোঝানো যতটা আরামদায়ক ও সোজা, অনেক সময়েই আমরা তা কথায় প্রকাশ করে বোঝাতে পারি না।

তাই, আপনার লিখন শৈলীর উপর যদি আপনার বিশ্বাস থাকে, তবে চিঠির মাধ্যমে প্রেম প্রস্তাবের ব্যাপারটা কিন্তু একেবারেই জমে যেতে পারে।

৬. টেক্সট মেসেজের মাধ্যমে প্রপোজ করুন:

প্রপোজের ব্যাপারটা শর্টেই সারতে পছন্দ করছেন? 

তাহলে টেক্সটিং-এর মাধ্যমে প্রপোজের কন্সেপ্টটা কিন্তু খারাপ নয়।

আর, টেক্সটের মাধ্যমে প্রেম প্রস্তাব দেওয়ার সময়, আপনি ফানি, রোমান্টিক, স্ট্রেইট ফরওয়ার্ড মেসেজ বা কবিতার সাহায্যও নিতে পারেন। 

এটি হল প্রপোজ করার সবথেকে সরাসরি ও ক্লাসি একটা উপায়।

তবে, অবশ্যই একটা সুন্দর মেসেজের সাহায্য নেবেন। 

কারণ, ওই টেক্সটের মধ্যেই আপনাকে আপনার অনুভূতিগুলো স্পষ্টভাবে প্রিয় পুরুষটাকে বুঝিয়ে দিতে হবে। 

৭. কৌতুকের ছলে প্রপোজ করুন:

আর, সবকিছু বাদ দিন! 

আপনি যদি মনে-প্রাণে একজন ডেয়ার ডেভিল হয়ে থাকেন, তবে সোজা রাস্তায় নর্মালভাবে প্রেম প্রস্তাব দেওয়াটা যদি আপনার কাছে বোরিং মনে হয়, তাহলে আপনার প্রিয় মানুষটাকে প্রেম নিবেদন করতে একদম হাটকে রাস্তা বেছে নিন। 

আপনি রোলার কোস্টারে উঠে বা কোনো কনসার্টের মাঝেও তাকে আপনার মনের কথা জানিয়ে দিতে পারেন।

কিংবা, তাকে কোনো স্পোর্টস টুর্নামেন্টে নিয়ে গিয়ে সারপ্রাইস প্রপোসালও দিতে পারেন।

৮. ড্রিঙ্কের সময় প্রপোজ করুন:

যদিও, এই আইডিয়াটা ছেলেদের প্রপোসিং স্টাইলের মধ্যে খুবই জনপ্রিয়। 

তাই, আপনিও এইভাবে প্রেম প্রস্তাব দেওয়ার ট্রাই নিতে পারেন। 

আপনি তার ড্রিঙ্কের মধ্যে বা খাবারের মধ্যে আংটি ঢুকিয়ে রেখে তাকে একদম অবাক করে দিয়ে প্রপোজ করতেই পারেন।

আবার, আপনি বারের ওয়েটারকে দিয়ে কোনো স্পেশাল ডিশ বানিয়ে ও স্পেশাল নোটস দিয়েও প্রিয় মানুষটাকে প্রেম নিবেদন করতে পারেন। 

৯. মেট্রো বা রেল স্টেশনে প্রপোজ করুন:

আপনারা কি একসাথেই একই জায়গাতে যাচ্ছেন? 

তাহলে, আপনি আপনার মনের মানুষটাকে রেল স্টেশন বা মেট্রো স্টেশনেও প্রপোজ করতে পারেন ঠিক ট্রেন বা মেট্রো প্ল্যাটফর্মে আসার সময়ে।

এই উপায়টা সত্যিই সেরা ও অনন্য অনুভূতি নিয়ে আসতে পারে। 

আপনার সাথে প্রপোজ করার সময় একটা আংটি নিতে ভুলবেন না যেন! 

এরপর আর কি, যেকোনো ক্লাসিক হলিউড রোমান্টিক মুভির মতো হাঁটু গেড়ে বসে সিগনেচার স্টাইলে প্রপোজ করেই ফেলুন!

একই রকমের প্রপোস আপনি কোনো শুনশান ব্রিজের উপর দাঁড়িয়েও করতে পারেন।

১০. পিকনিকে প্রপোজ করুন:

একটা নৈস্বর্গিক প্রাকৃতিক দৃশ্য, ঝলমলে আকাশ, আপনি ও আপনার সাথে সেই কাঙ্খিত পুরুষটি- এর থেকে বেশি রোমান্টিক সুযোগ কি আর আসতে পারে? 

এই মওকাতেই তার কাছে খুলে বলুন আপনার মনের কথা। 

এইরকম একটা রোমান্টিক ধরণের জায়গাতে প্রেম প্রস্তাব দিতে চাইলে, অবশ্যই আপনার প্রিয় পুরুষটাকে নিয়ে চট করে একটা পিকনিকের ব্যবস্থা করে ফেলুন আর বলে ফেলুন মন কি বাত!

১১. কোনো বিশেষ দিনে প্রপোজ করুন:

কোনো স্মরণীয় দিনে আরও বিশেষ স্মরণীয় কোনো ঘটনা ঘটলে তা আমরা চিরকালই তা মনে রেখে দিই। 

তাই, আপনার প্রিয় মানুষটার বিশেষ কোনোদিন, যেমন- তার জন্মদিন বা প্রথম চাকরি পাওয়ার দিন, এইরকম স্মরণীয় কোনো দিনে তাকে প্রপোজ করতেই পারেন। 

তাকে তার জন্মদিনে বিশেষ কিছু গিফ্ট দিয়ে প্রেম প্রস্তাব দিয়েই দেখুন না!

আমাদের আজকের ছেলেদের কিভাবে প্রপোজ করতে হয় ? বিষয়টি নিয়ে লেখা আর্টিকেলটি এখানেই শেষ হল। 

এর মধ্যে কোন উপায়টি আপনার পক্ষে একদম সেরা হবে, তা কমেন্ট করে জানাতে একদম ভুলবেন না। 

গুড লাক উইথ ইওর প্রপোসিং!

 

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top
Copy link