ডিজিটাল মার্কেটিং (digital marketing) কি ? এর প্রকারভেদ, ব্যবহার এবং লাভ

ডিজিটাল মার্কেটিং কি
Digital marketing কি ? about internet marketing in Bangla.

ডিজিটাল মার্কেটিং কি (What Is Digital Marketing in Bangla), আজকের আর্টিকেলের মাধ্যমে আমরা এই বিষয়ে জানবো।

আজকের এই ডিজিটাল মার্কেটিং টিউটোরিয়াল এর আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনারা অনলাইন মার্কেটিং (online marketing) এর সাথে জড়িত প্রত্যেকটি বিষয় স্পষ্ট করে বুঝে নিতে পারবেন।

এই আধুনিক মার্কেটিং এর প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে ইন্টারনেটের ব্যবহার হওয়ার ফলে,

অনেকেই ডিজিটাল মার্কেটিং কে, “online marketing” বা “internet marketing” বলেও বলেন।

আজ, ইন্টারনেটের ব্যবহার এবং জনপ্রিয়তা এতটাই বেড়ে গেছে যে, প্রায় প্রত্যেকেই দিনে থেকে ৫ ঘন্টা ইন্টারনেটে অনলাইন সক্রিয় থাকেন।

এই সময় আরো অধিক বেড়ে যাওয়ার কথা বলা হয়েছে যখন 3G এবং 4G network চলে এসেছে।

ইন্টারনেটে সক্রিয় (online) থাকা অবস্থায় আমরা নানান ধরণের কাজ গুলো করে থাকি।

যেমন, video দেখা, গেম খেলা, video calling, chatting, তথ্য সংগ্রহ করা, সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহার, online booking ইত্যাদি।

ইন্টারনেটের জনপ্রিয়তা এবং সহজলভ্যতা এতটা পরিমানে বেড়ে যাওয়ার ফলে,

আজ প্রায় যেকোনো জিনিস এর ক্ষেত্রে ইন্টারনেটের ব্যবহার ও বিকল্প রয়েছে।

আর সত্যি বললে,

যেখানে বা যেই জায়গায় জনসাধারণের উপস্থিতি অধিক বেশি থাকছে,

সেখানেই একটি product বা service এর প্রচারের (marketing) সুযোগ হয়ে দাঁড়াবে।

আর এই সুযোগের লাভ নিজে ইন্টারনেটের মাধ্যমে পণ্যের প্রচার করার একটি নতুন প্রক্রিয়ার জন্ম হলো যাকে বলা হয় “ডিজিটাল মার্কেটিং (digital marketing)“.

চলুন, নিচে আমরা “digital marketing কি (about digital marketing in Bangla)” বিষয়টা আরো ভালো করে বুঝে নেওয়ার চেষ্টা করি।

ডিজিটাল মার্কেটিং কি ? (What Is Digital Marketing in Bengali) 

ডিজিটাল মার্কেটিং কাকে বলে, বিষয়টা ভালো করে বুঝার জন্য আপনাকে একটু মন দিতে হবে।

ডিজিটাল মার্কেটিং বা অনলাইন মার্কেটিং বা ইন্টারনেট মার্কেটিং, হলো এমন এক আধুনিক প্রক্রিয়া,

যেখানে, বিভিন্ন অনলাইন চ্যানেল বা অনলাইন প্লাটফর্ম গুলোর ব্যবহার করে পণ্যের (products) এবং সেবার (services) প্রচার করা হয়।

যেকোনো ধরণের electronic device এবং internet এর ব্যবহার করে এই মার্কেটিং এর প্রক্রিয়া চালানো হয়।

ইন্টারনেটের মাধ্যমে প্রচার চালিয়ে, যেকোনো business, product, service ইত্যাদির marketing / selling (বিক্রি) করানোটাই হলো এই অনলাইন মার্কেটিং এর মূল উদ্দেশ্য।

ইন্টারনেট এর ব্যবহার করার জন্য আমাদের একটি ইলেকট্রনিক ডিভাইস (electronic device) ব্যবহার করতেই হয়।

যেমন, computer, laptop, mobile ইত্যাদি।

একটি electronic device এর ব্যবহার করে অনলাইনে সক্রিয় থাকার ফলে, এই প্রক্রিয়াটিতে “Digital” শব্দটি যোগ করা হয়েছে।

আর যিহেতু, দিনের পর দিন ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের সংখ্যা বেড়েই চলেছে,

তাই, ঘরে বসেই একটি ইলেকট্রনিক ডিভাইস এবং ইন্টারনেট এর ব্যবহার করে, যেকোনো পণ্যের (products) প্রচার (marketing) করার ক্ষেত্রে এক নতুন ও লাভজনক সুযোগ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

যিহেতু, electronic device (mobile, computer etc.) এবং ইন্টারনেট এর ব্যবহার করে অনলাইনে পণ্যের প্রচার করা হচ্ছে,

তাই, এই প্রক্রিয়াতে মার্কেটিং (marketing) শব্দটিকেও যোগ করা হলো।

আর এভাবেই গিয়ে, ডিজিটাল মার্কেটিং (digital marketing) এর প্রক্রিয়া এবং শব্দটির তৈরি হলো।

ইন্টারনেটের মাধ্যমে নিজের business, product বা services এর জন্য নতুন নতুন উপভোক্তা / গ্রাহক খুঁজে পাওয়ার সহজ প্রক্রিয়াটি হলো ইন্টারনেট মার্কেটিং।

তাহলে আশা করছি, ডিজিটাল মার্কেটিং বলতে কি বুঝায় বিষয়টা বুঝতেই পেরেছেন।

আজকের এই ডিজিটাল মার্কেটিং টিউটোরিয়াল এর আর্টিকেলে এখনো আরো অনেক কিছুই রয়েছে যেগুলো নিচে জানতে পারবেন।

ডিজিটাল মার্কেটিং এর কাজ কি ? 

দেখুন, digital marketing এর কাজ নিয়ে কথা বললে সে একাধিক কাজের কথাই বলা যেতে পারে।

এই মার্কেটিং এর প্রক্রিয়াতে আপনি কি কি কাজ করবেন সেটা আপনার skills, qualification এবং experience এর ওপরে নির্ভর করছে।

আবার, অনলাইন মার্কেটিং এর কাজ নির্ভর করছে একটি কোম্পানি বা ব্যবসার চাহিদার ওপরে।

আপনি চাইলে, ডিজিটাল মার্কেটিং এর মাধ্যমে একটি নতুন কোম্পানির ব্র্যান্ডিং (branding) এর ক্ষেত্রে একে ব্যবহার করতে পারবেন।

এর মাধ্যমে, যেকোনো কোম্পানির ছবি খারাপ বা ভালো করতে পারবেন, নতুন পুরোনো প্রোডাক্ট বা সেবার বিষয়ে প্রচার (marketing) করতে পারবেন, নিজের নতুন ব্যবসার বিষয়ে লোকেদের জানিয়ে দিতে পারবেন।

এছাড়া, নিজের গ্রাহকের সাথে সহজেই অনলাইনে সংযোগ স্থাপন করতে পারবেন এবং কেবল লক্ষ্যবস্তু গ্রাহকের কাছে প্রচার চালানো এর মাধ্যমে সম্ভব।

তাই, ডিজিটাল মার্কেটিং এর কাজ বলতে সে অনেক রয়েছে।

তবে, একটি ব্যবসার / কোম্পানির প্রয়োজন হিসেবে এই আধুনিক মার্কেটিং এর প্রক্রিয়াকে কাজে লাগাতে পারবেন।

বর্তমানে ডিজিটাল মার্কেটিং কেন জরুরি ? 

Small scale business হোক বা medium scale business, প্রত্যেক ক্ষেত্রেই digital marketing করাটা আজ অনেক জরুরি।

ধরুন আপনি একটি নতুন ব্যবসা চালু করেছেন,

এখন আপনাকে নিজের business চালু করার পর প্রথম যেই কাজটি করতে হবে সেটা হলো “marketing“.

সাধারণ বা ফিজিক্যাল মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে আমরা মূলত কিছু বিশেষ প্রক্রিয়া গুলো করে থাকি।

যেমন, 

  • দোকানের বাইরে পেপার (paper), পোস্টার বা ব্যানার লাগানো। 
  • leaflets এর মাধ্যমে প্রচার চালানো। 
  • Word-of-mouth marketing (কাস্টমার এর দ্বারা প্রোডাক্ট এর বিষয়ে প্রচার).
  • Door to door marketing (ঘরে ঘরে / দোকানে দোকানে গিয়ে ব্যবসার বিষয়ে লোকেদের বলা).

ওপরে যেগুলো প্রক্রিয়া আমি বললাম, সেগুলো সব offline marketing এর প্রক্রিয়া।

এই offline marketing এর প্রক্রিয়াতে আপনার প্রচুর সময়, টাকা এবং পরিশ্রমের ক্ষতি অবশই হবে।

কিন্তু, বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এতটা টাকা খরচ ও সময় খরচ করার বিপরীতে আমরা ২৫% রেজাল্টও পাইনা।

যদিও কিছু কিছু ক্ষেত্রে কিছুটা ভালো রেজাল্ট পাওয়া গেছে, সেটাও অনেক সময়, টাকা এবং পরিশ্রমের বিপরীতে পাওয়া গেছে।

এখন, যদি আপনি অনলাইনে মার্কেটিং করছেন তাহলে আপনার কি কি লাভ হতে পারে ?

আপনার নতুন business এর marketing এর ক্ষেত্রে যদি আপনি digital marketing / internet marketing এর ব্যবহার করে থাকেন,

তাহলে অবশই offline marketing এর তুলনায় প্রচুর লাভ পাবেন।

  • আপনি ঘরে বসে একটি computer, laptop বা mobile এর মাধ্যমে মার্কেটিং এর কাজ করতে পারবেন।
  • নিজের products / business এর বিষয়ে একসাথে একাধিক লোকেদের কাছে প্রচার করতে পারবেন।
  • যারা আপনার products/services ওপরে রুচি রাখেন সোজা সেই লক্ষ্যবস্তু গ্রাহকের কাছে মার্কেটিং করতে পারবেন।
  • অনেক কম পরিশ্রম এবং সময় এর বিপরীতে অধিক লোকেদের কাছে নিজের ব্যবসার প্রচার সম্ভব।
  • কারো ঘরে না গিয়েই ইন্টারনেটের মাধ্যমে ঘরে বসে থাকা গ্রাহকের কাছে নিজের product / business এর marketing সম্ভব।
  • Offline marketing এর তুলনায় অনেক কম টাকায় টার্গেটেড মার্কেটিং সম্ভব।
  • ডিজিটাল মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে, অনলাইনে মার্কেটিং করার প্রচুর আলাদা আলাদা platforms এবং channels রয়েছে।

তাহলে দেখলেন তো, আপনার নতুন business এর ক্ষেত্রে digital marketing লাভজনক হতে পারে।

আর এই প্রত্যেক কারণেই বর্তমান সময়ে ডিজিটাল মার্কেটিং প্রত্যেক ব্যবসার ক্ষেত্রে অনেক জরুরি।

এই অনলাইন মার্কেটিং এর ব্যবহার করে,

আপনি যেকোনো products / services এর জন্য তার লক্ষবস্তু (targeted) গ্রাহক / উপভোক্তা এখানে অবশই পাবেন।

যার ফলে, ডিজিটাল মার্কেটিং হয়ে দাঁড়িয়েছে লক্ষবস্তু গ্রাহকের কাছে মার্কেটিং করার এক অনেক লাভজনক উপায়।

Digital marketing এর প্রকারভেদ গুলো – (Types of Digital marketing) 

একটি mobile, laptop ইত্যাদি এবং ইন্টারনেট এর ব্যবহার করে আমরা ইন্টারনেট মার্কেটিং অবশই করতে পারি।

কিন্তু, অনলাইন মার্কেটিং করার জন্য আমাদের বিভিন্ন আলাদা আলাদা online platforms বা channels গুলোকে ব্যবহার করতেই হবে।

কেননা, এই online platforms এবং channels গুলোতেই users রা সক্রিয় (active) থাকছে।

বিভিন্ন online platforms / channels গুলোকে টার্গেট করেই আমরা অনলাইনে যেকোনো ক্ষেত্রে মার্কেটিং করতে পারি।

আর তাই, ডিজিটাল মার্কেটিং এর এই আলাদা আলাদা প্লাটফর্ম বা চ্যানেল গুলোকেই ডিজিটাল মার্কেটিং এর আলাদা আলাদা প্রকার হিসেবে ধরা হয়।

  1. SEO (search engine optimization)
  2. SEM (search engine marketing)
  3. SMM (social media marketing)
  4. Email marketing
  5. Video marketing
  6. Affiliate marketing
  7. Paid advertisements

চলুন, প্রত্যেকটি প্রকারের বিষয়ে নিচে বিস্তারিত ভাবে জেনেনেই।

SEO (search engine optimization) 

সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন হলো এমন এক প্রক্রিয়া যেখানে বিভিন্ন websites, blogs বা videos গুলোকে কিছু বিশেষ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে search engine গুলোতে র্যাংক (rank) করানো হয়।

এই প্রক্রিয়াতে আপনি বিভিন্ন জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন (Google, Bing, Yahoo) গুলোতে নিজের content page গুলোকে কোনো টাকা না দিয়ে একেবারেই ফ্রীতে বিভিন্ন প্রশ্ন, keywords বা search terms এর জন্য rank করাতে পারবেন।

উদাহরণ স্বরূপে, 

ধরুন আপনার একটি web designing এর agency আছে,

এখন  আপনি চাইছেন যে Google search এর মধ্যে যখনি কেও web designing এর সাথে জড়িত services এর বিষয়ে সার্চ করবেন তখন আপনার website বা business page তাদের দেখানো হোক,

তাছাড়া, আপনি কাজটি সম্পূর্ণ ফ্রীতে কোনো টাকা না দিয়েই করতে চাইছেন।

এক্ষেত্রে, আপনি নিজের website বা business page এর মধ্যে কিছু SEO techniques ব্যবহার করে,

Web designing services” এর সাথে জড়িত সার্চ গুলোর বিপরীতে নিজের business page টি সার্চ রেজাল্ট পেজে দেখিয়ে দিতে পারবেন।

এভাবে, আপনি SEOর ব্যবহার করে ফ্রীতে search engine গুলোর দ্বারা নিজের business এর ফ্রীতে মার্কেটিং করতে পারবেন।

তবে এক্ষেত্রে, আপনার business/product/service এর সাথে জড়িত একটি website, blog, article page বা product page থাকা জরুরি।

SEM (search engine marketing) 

SEM বা search engine marketing হলো এমন এক প্রক্রিয়া যেখানে একটি ব্যবসা বা পণ্যের প্রচারের ক্ষেত্রে বিভিন্ন search engine গুলোর ব্যবহার করা হয়।

জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন গুলো যেমন, Google, Yahoo ইত্যাদি গুলোতে নিজের business এর সাথে জড়িত website/ blog গুলোকে টাকা দিয়ে বিজ্ঞাপনের (ads) দ্বারা দেখানো হয়।

ফলে, search engine এর দ্বারা অধিক লোকেরা আপনার business website এর মধ্যে চলে আসেন।

এবং যার ফলে আপনার business বা product এর মার্কেটিং হয়ে যায়।

আপরা প্রত্যেকেই জানি, ইন্টারনেটে সব থেকে অধিক পরিমানে ব্যবহার হওয়া প্লাটফর্ম হলো “সার্চ ইঞ্জিন”.

সার্চ ইঞ্জিন গুলোতে যেকোনো বিষয়ে প্রত্যেক দিন লক্ষ লক্ষ লোকেরা সার্চ করে থাকেন।

আর তাই, এই search engine গুলোতে advertisements (ads) এর মাধ্যমে নিজের product/business গুলোর মার্কেটিং করাটা অধিক লাভজনক হিসেবে প্রমাণিত হয়েছে।

SMM (social media marketing) 

SMM বা social media marketing এর ক্ষেত্রে, বিভিন্ন social media platform গুলোকে ব্যবহার করে অনলাইনে মার্কেটিং / প্রচার চালানো হয়।

যেমন, Facebook, YouTube, Twitter, Instagram ইত্যাদি।

বর্তমান সময়ে, সোশ্যাল মিডিয়া গুলোর মাধ্যমে যেকোনো ব্যবসা/পণ্যের প্রচার করাটা অন্যান্য প্লাটফর্ম গুলোর তুলনায় অধিক লাভজনক হিসেবে প্রমাণিত হয়েছে।

আপনি, video, text content, images, graphics ইত্যাদি সোশ্যাল মিডিয়া গুলোতে পাবলিশ করে প্রোডাক্ট এর মার্কেটিং করতে পারবেন।

আজ ছোট-বড় যেকোনো ব্যক্তির অনলাইন সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্ট রয়েছে।

তাই, Facebook বা Instagram এর মতো social media platform গুলোকে ব্যবহার করে আপনি যেকোনো ধরণের প্রোডাক্ট / ব্যবসার প্রচারের ক্ষেত্রে লক্ষবস্তু গ্রাহক অবশই পেয়ে যাবেন।

অনলাইন সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইট গুলো বর্তমানে অধিক বেশি জনপ্রিয়তা লাভ করছে এবং কোটি কোটি লোকেরা নিজেদের একাউন্ট সেখানে তৈরি করছেন।

আর যা আমি আগেই বলেছি, যেখানেই থাকবে অধিক সংখ্যায় ইউসার (user) সেটাই হবে মার্কেটিং এর সেরা মাধ্যম।

Email marketing 

যদি কোনো company / business তার products বা services গুলোকে email এর মাধ্যমে প্রচার করে, তাহলে সেই প্রক্রিয়াকেই বলা হয় “Email marketing“.

আপনারা নিজের ইমেইল একাউন্টের ইনবক্সে গিয়ে দেখলেই বুঝতে পারবেন ইমেইল মার্কেটিং কি।

কেননা, আমাদের প্রত্যেকের ইমেইল এর ইনবক্সে বিভিন্ন কোম্পানি / সার্ভিস গুলোর থেকে নানান ধরণের offer, discount, product notification email ইত্যাদি আসতেই থাকে।

আর, এই ইমেইল গুলো হাজার হাজার লোকেদের পাঠানোর মূল উদ্দেশ্য একটাই, যাতে আমরা সেই product / service এর বিষয়ে জেনেনিতে পারি।

এতে, product / services গুলোর মার্কেটিং হওয়ার সাথে সাথে সেগুলো বিক্রি হওয়ার সুযোগ বেড়ে যাচ্ছে।

Video marketing 

Video marketing” বর্তমান সময়ে ডিজিটাল মার্কেটিং এর অনেক লাভজনক ও জনপ্রিয় ভাগ হিসেবে প্রমাণিত হয়েছে।

আপনি নিজের product/services এর সাথে জড়িত videos তৈরি করে তারপর সেগুলোকে বিভিন্ন online platforms গুলোতে পাবলিশ করতে পারবেন।

Facebook, YouTube ইত্যাদিতে নিজের account বানিয়ে সেখানে নিজের video content গুলোকে পাবলিশ করতে পারবেন।

এভাবে, আপনার তৈরি করা video content যখন অন্যান্য user রা দেখবেন, তখন তারা ভিডিওর মাধ্যমে আপনার brand, business, product বা service এর বিষয়ে জেনেনিতে পারবেন।

এভাবে ভিডিওর মাধ্যমে brand, business, product বা service এর প্রচার করাকেই বলা হয় ভিডিও মার্কেটিং।

Affiliate marketing 

কোম্পানি গুলো তাদের products / services গুলোকে বিভিন্ন অন্যান্য blogs, websites, YouTube channel ইত্যাদিতে affiliate links এর মাধ্যমে প্রচার করার সুযোগ দিয়ে থাকে।

আর যখন, সেই blog, website বা YouTube চ্যানেল এর মধ্যে প্রচার করা products গুলোকে ইউসার দ্বারা কিনে নেওয়া হয়,

তখন, সেই বিক্রির বিপরীতে কমিশন হিসাবে কিছু টাকা সেই blog, website বা YouTube চ্যানেল এর মালিককে দেওয়া হয়।

Product/services গুলোকে marketing করানোর এই প্রক্রিয়াকেই বলা হয় affiliate marketing.

এবং, এই এফিলিয়েট মার্কেটিং হলো ডিজিটাল মার্কেটিং এর অনেক বড় একটি অংশ, ভাগ বা প্রকার।

Paid advertisements 

আমরা যখিনি ইন্টারনেটে কোনো ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে থাকি, তখন বেশিরভাগ ওয়েবসাইটেই আমাদের বিভিন্ন বিজ্ঞাপন দেখানো হয়।

সেই বিজ্ঞাপন গুলো বিভিন্ন কোম্পানির দ্বারা টাকা দিয়ে বা টাকার বিনিময়ে দেখানো হয়।

এভাবে, YouTube, Facebook, Instagram, Twitter ইত্যাদি যেকোনো online platform গুলোতে টাকা দিতে দেখানো বিজ্ঞাপন গুলোকেই বলা হয় paid advertisements.

এই paid ads গুলোর মাধ্যমে আপনি নিজের business, product, brand বা services গুলোকে অনেক সহজে এবং তাড়াতাড়ি অনলাইনে লোকেদের কাছে প্রচার করতে পারবেন।

তবে যা আমি আগেই বলেছি, এক্ষেত্রে আপনাকে টাকা খরচ করতে হবে।

এক্ষেত্রে, যত বেশি টাকা আপনি খরচ করবেন, অনলাইনে ততটাই অধিক লোকেদের কাছে নিজের ব্যবসার প্রচার করতে পারবেন।

ডিজিটাল মার্কেটিং এর সুবিধা এবং লাভ 

ডিজিটাল মার্কেটিং এর ব্যবহার করে বর্তমানে প্রায় বেশিরভাগ ব্যবসার প্রচার অনলাইনে করা হচ্ছে।

তাই, এই আধুনিক ইন্টারনেট মার্কেটিং এর প্রক্রিয়াটি এতটা জনপ্রিয় হওয়া মানেই এর দ্বারা কোম্পানি এবং ব্যবসায়ীরা প্রচুর লাভ পাচ্ছেন।

চলুন, নিচে সরাসরি জেনেনি ডিজিটাল মার্কেটিং এর লাভ এবং সুবিধার বিষয়ে।

  • আপনার কাস্টমার (customer) আপনার সাথে অনেক সহজে অনলাইনে যোগাযোগ করতে পারে। ফলে, কাস্টমার এর মনে আপনার প্রতি এক বিশ্বাস এর সৃষ্টি হয়।
  • খুব সহজেই সঠিক লক্ষবস্তু গ্রাহক দের টার্গেট করা সম্ভব।
  • Offline marketing এর তুলনায় অনেক কম টাকা এবং সময় খরচ করে ৭০% অধিক পজিটিভ রেজাল্ট পাওয়া সম্ভব।
  • ঘরে বসে থাকা উপভোক্তার (consumer) কাছে brand, business, product এর প্রচার নিজের ঘরে বসেই করতে পারবেন।
  • Customer review এর মাধ্যমে নিজের product / brand এর quality বিষয়ে বুঝতে পারবেন।
  • ইন্টারনেটের মাধ্যমে এই মার্কেটিং এর প্রক্রিয়া কাজ করে, তাই সাথে সাথে বা অনেক কম সময়ের মধ্যে মার্কেটিং সম্ভব।
  • ডিজিটাল মার্কেটিং জেকেও শিখতে পারবেন এবং ছোট বা বড় যেকোনো ব্যবসার ক্ষেত্রে আপনি ব্যবহার করতে পারবেন।

ডিজিটাল মার্কেটিং এর ভবিষ্যৎ 

ইন্টারনেটের ব্যবহার বৃদ্ধি পাওয়ার সাথে সাথে বর্তমানে ডিজিটাল মার্কেটিং এর চাহিদা প্রচুর বৃদ্ধি পেয়েছে।

কারণ, যত বেশি লোকেরা ইন্টারনেটের মাধ্যমে বিভিন্ন অনলাইন প্লাটফর্ম গুলোতে সক্রিয় থাকবেন,

কোম্পানি গুলোর কাছে ততটাই বেশি সুযোগ হয়ে দাঁড়াবে সেই ব্যক্তিদের কাছে পণ্যের প্রচারের।

কারণ, offline marketing এর তুলনায় digital marketing এর প্রক্রিয়া অনেক সহজে ঘরে বসেই করা সম্ভব,

তাই, এই মার্কেটিং এর প্রক্রিয়া আসছে কিছু বছরের মধ্যে আরো অধিক জনপ্রিয়তা লাভ করবেন।

ডিজিটাল মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে অনেক কম টাকা খরচ করে লক্ষবস্তু উপভোক্তার কাছে পণ্যের প্রচার করাটা সম্ভব,

তাই, বর্তমানে প্রায় প্রত্যেক ছোট-বড় কোম্পানি গুলো কোনো না কোনো ভাবে অনলাইন মার্কেটিং এর ব্যবহার করছেন।

যেহেতু, ইন্টারনেটের মাধ্যমে হওয়া এই আধুনিক মার্কেটিং এর প্রক্রিয়ার ফলে ব্যবসায়ীরা / কোম্পানি গুলো অধিক গ্রাহক সহজেই পেয়ে যাচ্ছেন,

তাই, আসছে সময়ের মধ্যে digital marketing এক অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের রূপ নিয়ে নিবে।

আর সোজা ভাবে বললে, ডিজিটাল মার্কেটিং এর ভবিষ্যৎ অনেক উজ্জ্বল এবং এই ক্ষেত্রে চাকরির সুযোগ কিন্তু সাংঘাতিক পরিমানে বাড়তে চলেছে।

আমাদের শেষ কথা,,

তাহলে বন্ধুরা, আশা করছি “ডিজিটাল মার্কেটিং মানে কি” এই বিষয়ে আপনারা সম্পূর্ণ ভালো করে বুঝতে পেরেছেন।

এছাড়া, আমরা আজকে ডিজিটাল মার্কেটিং এর গুরুত্ব, প্রকার এবং লাভ এর বিষয়েও জানলাম।

আমাদের আজকের এই ডিজিটাল মার্কেটিং টিউটোরিয়াল যদি আপনাদের পছন্দ হয়েছে,

তাহলে অবশই আর্টিকেলটি শেয়ার (share) করতে ভুলবেননা।

আর্টিকেলের সাথে জড়িত কোনো ধরণের প্রশ্ন বা পরামর্শ থাকে, তাহলে অবশই নিচে কমেন্ট করে জানিয়ে দিবেন।

 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error:
Scroll to Top
Copy link