পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর শহর কোনটি / কোন গুলো – (৭টি সুন্দর শহর)

পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর শহর কোনটি  (বিশ্বের সেরা ৭টি সুন্দর শহরের তালিকা), নিয়ে আমাদের আজকের আর্টিকেলটি রয়েছে।

পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর শহর কোনটি

আমাদের বিশ্বে প্রায় ১০,০০০-টিরও বেশি শহর রয়েছে। আর, এদের সকলেরই নিজস্ব ব্যক্তিত্ব ও আকর্ষণ আছে। 

এইসব শহরের বেশ কিছু শতাব্দী পুরোনো, দুর্দান্ত প্রাচীন কারুকার্যের ঐতিহ্য বয়ে নিয়ে চলেছে। 

কোনো শহর আবার তুলনামূলকভাবে নতুন ও নিত্য-নতুন স্থাপত্য নিদর্শনের স্থান হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে। 

কিংবা, কোনো কোনো শহরের রয়েছে অমূল্য ঐতিহাসিক মূল্য। 

তারপরেও, এমন অসংখ্য শহর রয়েছে; যা পৃথিবীর সবচেয়ে অত্যাশ্চর্য উদ্যানগুলোর আস্তানা। 

তাই, বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দর শহর গুলোর তালিকা তৈরী করা যথেষ্টই কঠিন একটা ব্যাপার। 

তা সত্ত্বেও, আমাদের এই আর্টিকেলে আমরা আলোচনা করবো, জনপ্রিয়তা, স্থাপত্য নিদর্শন ও ঐতিহাসিক গুরুত্বের ভিত্তিতে আমরা পৃথিবীর সেরা ৭টি শহরকে বেছে নিয়েছি সেই তালিকাটা নিয়ে।

পৃথিবীর সেরা ৭টি সুন্দর শহরের তালিকা:

চলুন, তাহলে জেনে নেওয়া যাক, যে পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর শহর কোনটি ?

১. প্যারিস, ফ্রান্স: 

Paris France image

ফ্রান্সের প্যারিস পৃথিবীর সমস্ত শহরের মধ্যে সবচেয়ে সুন্দর, রোমান্টিক ও মার্জিত হিসেবে জনপ্রিয়। 

এর শতাব্দী প্রাচীন ক্যাথেড্রাল, বিখ্যাত বুলেভার্ড, সেইন আর এর মানববসৃষ্ট স্থাপত্যগুলো হল শিল্প ও বিজ্ঞানের এক অভিনব মিশ্রণ।

এখানকার রোম্যান্টিক ব্রিজ, মন্টমার্ত্রের পাথরের রাস্তা ও রাজকীয় প্রাসাদ এই শহরে এক আলাদা মাত্রার আভিজাত্য যোগ করেছে। 

এই আলোর শহরের প্রেমে মজেছেন বহু চিত্রশিল্পী, লেখক, কবি সুরকার ও ভাস্কর। 

ল্যুভর, নটর-ডেম, ডিজনিল্যান্ড প্যারিস ও আইফেল টাওয়ারের অবস্থান ফ্রান্সের প্যারিসকে বিশ্বের অন্যতম দর্শনীয় স্থানে পরিণত করেছে।

২. ভেনিস, ইতালি: 

ইতালির ভেনিস শহর হল এমন একটি জায়গা যার সাথে অন্য কোনো জায়গার সাথে তুলনা করাই হল একটা অন্যায্য ব্যাপার। 

প্রায় চারশোরও বেশি সেতু এই শহরকে সংযুক্ত করেছে; আর এটি প্রায় একশোরও বেশি ছোট দ্বীপ নিয়ে গঠিত।

এই সুন্দরতম শহরের সর্বশ্রেষ্ঠ আকর্ষণ হল, এখানে কেবলমাত্র গন্ডোলাই হল মানুষের যাতায়াতের একমাত্র মাধ্যম। 

এর জলপথের ব্যাপক বিস্তৃতির দরূণ এটি ভাসমান শহরের পরিচিতি পেয়েছে। 

যা ভেনিসকে ইউরোপের সবচেয়ে অনন্য শহরগুলোর মধ্যে একটিতে রূপান্তরিত করেছে।

এখানের বিল্ডিংগুলো হল এক একটি শিল্পের নমুনা। 

যখন এর খালগুলোতে বিল্ডিংগুলোর ছায়া প্রতিফলিত হয়, তখন এটিকে আরও সুন্দর দেখতে লাগে।

এই ধরণের অসামান্য সুন্দর দৃশ্যাবলী প্রথম দর্শনেই যে কারোর মনে বিস্ময় তৈরী করতে পারে।

৩. ব্যাংকুভার, কানাডা: 

Vancouver-image

ভ্যাঙ্কুভারের (Vancouver) অত্যাশ্চর্য পাহাড়, বন্যপ্রাণী-ভরা জলপথ (অর্কাস হোয়েল), ও ঘন রেইন ফরেস্ট (যেখানে ভাল্লুকের অবাধ বিচরণ) এই শহরকে এক অন্যমাত্রায় সুন্দর করে তুলেছে।

সবসময়কার জাঁকজমক শহরটিকে অনেক প্রানোচ্ছল করে তোলে। 

এই শহরের ডাউনটাউনের গ্লাস টাওয়ারের লাগানো কাচের গায়ে শহরের সমস্ত দৃশ্যগুলো প্রতিফলিত হয়, যা দেখতে খুবই অন্যরকম ও আকর্ষণীয় লাগে।

এখানে সারা বছর খুবই বেশি বৃষ্টিপাত হয়। 

তাই, এই শহরে ভ্রমণের আদর্শ সময় হল জুন থেকে সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত।

৪. বুদাপেস্ট, হাঙ্গেরি:

Budapest-city-image

“ইউরোপের হৃদয়” নামে পরিচিত বুদাপেস্ট (Budapest) শহরটি দানিউব নদী দ্বারা দুই ভাগে বিভক্ত।

যে কারণে এই শহরটির তিনটি ভাগ একত্রিত হয়ে গঠিত। 

বুদা হল রাজকীয় প্রাসাদসহ পাহাড় এবং ১৯ শতকের গথিক ও বারোক স্মৃতিস্তম্ভে ভরা একটি পুরানো শহর।

অন্যদিকে, পেস্ট শহরের স্থাপত্যগুলো হল মার্জিত নিও-রেনেসাঁ শৈলী দ্বারা অনুপ্রাণিত। 

মনুমেন্টাল চেইন ব্রিজ থেকে এই শহরের স্থাপনা ও অসাধারণ স্থাপত্যের দৃশ্য কিন্তু বেশ উপভোগ্য। 

বুদাপেস্টের অত্যাশ্চর্য সংসদ ভবনটি বেশ দৃষ্টিনন্দন।

এখানের রোমান্টিক লেনগুলোর মধ্যে দিয়ে এই পুরানো শহরে হেঁটে দেখতে বেশ ভালোই লাগে।

৫. ইস্তানবুল, টার্কি: 

“বিশ্বের আকাঙ্ক্ষার শহর” নামে পরিচিত টার্কির ইস্তাম্বুলের একটা দুর্বার আকর্ষণ রয়েছে।

পৃথিবীর সুন্দরতম শহর গুলোর মধ্যে এটি এর সমৃদ্ধ ইতিহাসের জন্য অনেকখানি প্রসিদ্ধ। 

অতীতে এই শহরটি বাইজেন্টিয়াম ও কনস্টান্টিনোপল নামে অভিহিত হতো।

ইস্তাম্বুলের বাগান ও সুন্দর কাঠামো গুলো ঐশ্বর্য ও পুরানো সৌন্দর্যের এক সুন্দর মিশেল।

পূর্ব এবং পশ্চিমকে সংযুক্ত করার জন্যে টার্কি সৈন্যরা বেশ কতগুলো শহরের দখল নিয়েছিল, কিন্তু বাইজেন্টাইন সাম্রাজ্যের আগে এই শহরে কোনো অনন্য শৈলীর উদ্ভব হয়নি।

এখানকার অতুলনীয় সুন্দর মোজাইক ও ফ্রেস্কোগুলো এর গির্জা ও প্রাসাদ গুলোকে এক অন্যরকম সুন্দর রূপ দিয়েছিল।

এই স্থাপত্য কর্মের অনেকগুলো আজও পর্যন্ত টিকে আছে; যেমন- হাজিয়া সোফিয়া। 

অটোমান সাম্রাজ্য ক্ষমতায় থাকাকালীন তারা কয়েকটি ঐতিহাসিক স্থাপত্য নির্মাণ করে, যেমন – ইম্পেরিয়াল মসজিদ, ব্লু মসজিদ ও অন্যান্য।

৬. দুবাই (Dubai)

দুবাই (Dubai) স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তার প্রদানের জন্য বিশ্বের সেরা ১০টি শহরের মধ্যে অন্যতম হয়েছে। 

কারণ, এটি বিশ্ব ভ্রমণ ও পর্যটন কাউন্সিলের থেকে বিশ্বব্যাপী স্বীকৃত ‘নিরাপদ ভ্রমণ’ স্থান হিসেবে পুরস্কৃত হয়েছে।

এই শহরটি তার ভ্রমণকারীদের মানসম্মত স্বাস্থ্য ও স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কিত নিয়মকানুন মেনে তবেই সফরের অনুমতি দিয়ে থাকে। 

এখানকার বুর্জ খলিফা হল বিশ্বের সর্বোচ্চ লম্বা টাওয়ার।

সুন্দর আবহাওয়া ও আকর্ষণীয় সৈকত ছাড়াও, দুবাইয়ের একটি চিত্তাকর্ষক স্থাপত্য ও অত্যাশ্চর্য বিল্ডিংয়ের আধিক্য; একে ভ্রমণের সেরা জায়গা হিসেবে পরিণত করেছে। 

এখানে বিশ্বের সর্বোচ্চ টাওয়ার, বৃহত্তম মল, ও একচেটিয়া রেস্তোরাঁ, হোটেল এবং নাইটস্পটগুলো রয়েছে।

৭. হংকং, চীন: 

Hong-Kong-image

চীনের বিখ্যাত শহর হংকং “প্রাচ্যের মুক্তা” নামে পরিচিত।

এটি বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ফোটোগ্রাফাড শহর হিসেবেও বিখ্যাত। 

এখানকার সবুজ পাহাড়ের পটভূমিতে সুউচ্চ আকাশচুম্বী ভবন ও আধুনিক স্থাপত্য; এর বুকে একটা দর্শনীয় প্যানোরামার সৃষ্টি করে।

এই শহর তার মনোরম স্ক্যাইলাইনের জন্যে বিখ্যাত। 

এখানকার ব্যস্ত জীবনধারা, একটি সুন্দর বন্দর, বন্ধুত্বপূর্ণ মানুষ, কেনাকাটার আধিক্য ও নানান রেস্তোরাঁ আর বিভিন্ন ধরণের রান্নার জন্য এটি বহু মানুষের কাছে একটা প্রিয় শহর হয়ে উঠেছে।  

সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি থেকে ফেব্রুয়ারির শেষ পর্যন্ত হংকং-এ সুন্দর, রৌদ্রোজ্জ্বল আবহাওয়া থাকে, যা ভ্রমণের জন্যে একদম যথাযথ।

আমাদের শেষ কথা,,

আমাদের আজকের বিষয় বিশ্বের সব থেকে সুন্দর শহর গুলো কোন গুলো নিয়ে লেখা আর্টিকেলটি এখানেই শেষ হল।

লেখাটি পছন্দ হলে এবং আর্টিকেলের সাথে জড়িত কোনো ধরণের প্রশ্ন বা পরামর্শ থাকলে সেটা অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন।

এছাড়া, আর্টিকেলটি যদি আপনার সত্যি ভালো লেগে থাকে, তাহলে সোশ্যাল মিডিয়া পেজ গুলোতেও অবশই শেয়ার করবেন।

 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top