গার্লফ্রেন্ডকে কি গিফট করা যায় | প্রিয়জনকে কি উপহার দিবেন

গার্লফ্রেন্ডকে কি গিফট করা যায় ? প্রিয়জনকে কি উপহার দিবেন ? আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আমরা এই বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করতে চলেছি।

নারীদের মন পাওয়া নাকি খুবই কঠিন! 

আজ্ঞে তা অল্প-অল্প সত্যি হলেও, পুরোপুরি সত্যিও কিন্তু নয়! 

আসলে, মেয়েদের মন অনেক নরম হয়, আর তারা চায় তাদের কাছের মানুষেরা তাদেরকে যেন একটু প্যাম্পার করে। 

প্যাম্পার, ভালোবাসা-প্রেমের কথা একদিকে, আর গার্লফ্রেন্ডকে কিছু গিফট দেওয়ার গল্প অন্যদিকে। 

দুনিয়াতে মেয়েদেরকে গিফ্ট করার ১০০১টা আইটেম রয়েছে, তাও আপনার গার্লফ্রেন্ডকে কি গিফট করবেন, তার জন্যে আপনি কি মাথার ঘাম পায়ে ফেলছেন?

তবে, আর চিন্তা করবেন না, আজকে আমাদের এই আর্টিকেলে আমরা কথা বলবো, আপনার সবথেকে বেশি চিন্তার বিষয় ‘গার্লফ্রেন্ডকে কি গিফট করা যায়’ ব্যাপারটা নিয়ে। 

তাহলে, বেশি দেরি না করে চলুন দেখে নিই, গার্লফ্রেন্ডকে কি উপহার দিলে সে একদম খুশি হয়ে যাবে-

গার্লফ্রেন্ডকে কি গিফট করা যায় ? ২০টি সেরা উপহারের আইডিয়া:

গার্লফ্রেন্ডকে কি গিফট করা যায়
প্রিয়জনকে কি উপহার দেওয়া যায় ?

গিফট ছোট হোক বা বড়, দামি হোক বা কম দামি, সেটা কোনো ইস্যুই নয় মেয়েদের ক্ষেত্রে। 

তবে, যেই জিনিসটা সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ সেটা হল, উপহারটি আপনার প্রেমিকার যেন কাজে লাগে, সেই বিষয়ে খেয়াল রাখবেন। 

বাকিটা ডিপেন্ড করে আপনার প্রিয় মানুষটির পছন্দ-অপছন্দের উপর। 

১. ফুলের তোড়া, বুকে বা লাইভ প্ল্যান্টস:

প্রায় প্রতিটা মেয়েই কিন্তু ফুল ভালোবাসে। 

কেউ ভালোবাসে অর্কিড, কেউ গোলাপ আবার কেউবা সূর্যমুখী। 

সে যাই হোকনা কেন, আপনার প্রেমিকা প্ল্যান্ট বা ফ্লাওয়ার লাভার হলে অবশ্যই কোনো বিশেষ বা এক্সটিক ফ্লাওয়ার বা প্ল্যান্ট গিফট দিতেই পারেন।

২. ম্যাগনেটিক চেস সেট:

আপনার গার্লফ্রেন্ডটি স্মার্ট ও ইন্টেলিজেন্ট হলে, অবশ্যই তাকে একটা ম্যাগনেটিক চেস সেট উপহার হিসেবে দিতে পারেন। 

এই ধরণের সেটগুলো ঘর সাজানো থেকে শুরু করে দাবা খেলার কাজেও লেগে যায়। 

যার ফলে, আপনার প্রেমিকাও খুশি,আর আপনিও খুশি।

৩. জেড রোলার ও ফেসিয়াল টুল:

আপনার প্রিয় মানুষটি যদি স্কিনকেয়ার বিষয়টি নিয়ে একটু বেশিই মত্ত থাকে, তাহলে তাকে অবশ্যই একটা সুন্দর দেখে জেড রোলার ও ফেসিয়াল টুল কিট দেওয়া যেতে পারে। 

এই ধরণের কিটগুলো তাকে তার মুখের ঔজ্বল্য ও সৌন্দর্য বৃদ্ধি করতে সাহায্য করবে।

৪. ফ্র্যাগ্রান্ট বডি অয়েল:

আয়ুর্বেদ প্রোডাক্টস ভালোবেসে থাকলে, আপনার প্রেমিকাকে আপনি কোনো আয়ুর্বেদিক ফ্র্যাগ্রান্ট বডি অয়েল সেট গিফ্ট করতে পারেন। 

এই তেলগুলো মুড লিফ্ট করতে বেশ সাহায্য করে। 

আর, যেকোনো শৌখিন মানুষের জন্যেই এই ধরণের উপহার সত্যিই মূল্যবান হয়ে থাকে।

৫. হার্বাল গ্রীন টি কীট:

আপনার গার্লফ্রেন্ড যদি চায়ের ব্যাপারে বেশ খুঁতখুঁতে হয়, আর ফ্লেভার্ড চা ভালোবেসে থাকে, তবে অবশ্যই তাকে একটা দামী ও ব্রানড হার্বাল গ্রীন টি কিট দিতে পারেন। 

মূলত, এই ধরণের কীটে নানা ধরণের ফ্লেভার, যেমন- ক্যামোমাইল, হিবিসকাস, তুলসী, হলদি ও জেসমিন ইত্যাদি অনেক রকমের চা পাওয়া যায়।

ডেটক্সিফায়িং, ফ্যাট-বার্নিং, স্কিন-গ্লোয়িং হারবাল টি সেটগুলোও ট্রাই করে দেখতে পারেন।

৬. ইলেট্রনিক ডিভাইস:

টেক-স্যাভি গার্লফ্রেন্ড হলে তাকে ল্যাপটপ, আইপড, গেমিং হেডফোন, প্লেস্টেশন ও নানা ধরণের ইলেকট্রনিক ডিভাইস দেওয়া হল সবথেকে বুদ্ধিমানের ব্যাপার। 

এইবার আপনি আপনার গার্লফ্রেন্ডের চাহিদা ও পছন্দ অনুযায়ী ইলেকট্রনিক্স গ্যাজেট তাকে উপহার দিতে পারেন।

৭. জুয়েলারি সেট:

তা, সোনা-দানা, ডায়মন্ড, পার্লস হোক বা সেমী-প্রেসিয়াস স্টোনের সেট, কম-বেশি সব মেয়েই গয়না পরতে ভালোবাসে। 

আপনি আপনার পছন্দমতো জুয়েলারি সেট আপনার প্রিয় মানুষটিকে গিফট করতেই পারেন। 

তবে, গয়নায় ভারী কাজ হোক বা হালকা, সেটা আপনার প্রেমিকার পছন্দের উপরই নির্ভর করে। 

এছাড়াও, এখন অনেক কটেম্পোরারি জুয়েলারি, ক্লে, জুট ও আরও নানান ধরণের গয়না বেরিয়েছে; আপনি আপনার পছন্দ ও বাজেট অনুযায়ী যেকোনো গয়নার সেটই তার জন্যে নিতে পারেন।

৮. ব্লু লাইট গ্লাসেস:

আজকাল আমরা সবাই কম-বেশি স্মার্টফোনের বা ল্যাপটপের স্ক্রিনের উপর চোখ রেখেই দিন কাটিয়ে দিই। 

যেটা আমাদের চোখের অনেক ক্ষতি করে। 

তাই, আপনার ভালোবাসার মানুষটির প্রতি একটু যত্ন-আত্তি, দেখাতে অবশ্যই তাকে একটা ব্লু লাইট গ্লাসেস উপহার দিতে পারেন। 

এই গ্লাসেসগুলো দেখতেও খুবই স্টাইলিশ হয়। 

আর, মূলত এই চশমাগুলো মাথাব্যথা কমাতে ও ঘুমের মান বাড়াতে বেশ সাহায্য করে।

৯. ওটিটি (OTT) সাবস্ক্রিপশন:

আপনার গার্লফ্রেন্ড কি ওয়েব সিরিজ দিওয়ানি? 

তাহলে, আপনার অবশ্যই উচিত আপনার গার্লফ্রেন্ডকে তার প্রিয় ওটিটির সাবস্ক্রিপশনটিকে উপহার হিসেবে দেওয়া। 

এখনকার দিনে, এইটা একটা বেশ অন্যরকম কিন্তু ইউসফুল গিফ্টে পরিণত হয়েছে। 

তাই, নির্দ্বিধায় আপনার প্রিয় মানুষকে একটা ওটিটি সাবস্ক্রিপশন কিনে দিন। 

তার আগে, অবশ্যই তার পছন্দটা জেনে নেবেন।

১০. পশমের ব্ল্যাঙ্কেট:

প্রেমিকাদের মনের মতো নরম, গরম ও হালকা ব্ল্যাঙ্কেট কিন্তু অল্প শীতে গার্লফ্রেন্ডদের গিফট করলে মন্দ হয় না। 

আর, যখনই আপনার প্রিয় মানুষটি এই ব্ল্যাঙ্কেট ব্যবহার করবে, তখনই সে আপনার কথা মনে করতে বাধ্য।

১১. ব্র্যান্ডেড পার্স বা লেডিস ব্যাগ:

সে ব্র্যান্ড লাভি হোক বা গুচি, আপনার গার্লফ্রেন্ড যদি ফ্যাশনিস্টা হয়, তবে ব্র্যান্ডেড পার্স বা ব্যাগ কিন্তু চট করেই তার মন জয় করে নেবে।

তাই, আপনি তাকে সুন্দর দেখতে কোনো হ্যান্ড ব্যাগ বা পার্সও উপহার হিসেবে দিতে পারেন।

১২. ডিজিটাল অ্যালার্ম ক্লক:

এখনকার ডিজিটাল অ্যালার্ম ক্লকগুলোও বেশ স্টাইলিশ দেখতে হয়। 

এই ট্রেন্ডি ঘড়িগুলো শুধু সময় নয়, বরং মোবাইল চার্জ দিতে, গান চালাতে, রেডিও চালাতে পারে। 

এই নতুন ধরণের গিফটটা দেখতেও আকর্ষণীয় হয় আর একেবারেই অন্যরকম একটা গিফট অপশনের মধ্যে পড়ে।

১৩. ওয়ান-টাচ ইলেকট্রিক কেটলি:

আপনার গার্লফ্রেন্ডটি যদি টি বা কফি-লাভার হয়, তবে একটি বেসিক ওয়ান-টাচ ইলেকট্রিক কেটলি হতে পারে, তার জন্যে একটা থঠফুল গিফট। 

এই ধরণের কেটলিগুলো ছোট-খাটো হয়, আর খুব দ্রুত জল গরমও করতে পারে। 

তাই, আপনার গার্লফ্রেন্ড যখন তার ডেস্কে কাজ করবে, তখন সে তার ডেস্কে বসেই এই কেটলি ব্যবহার করে চা বা কফি তৈরী করে নিতে পারবে। 

আর, এই কেটলি ব্যবহার করাও খুব সহজ।

১৪. জার্নাল:

আপনার প্রেমিকা কি কলেজ স্টুডেন্ট বা লিখতে ভালোবাসেন? 

তবে, সুন্দর সুন্দর দেখতে জার্নালও কিন্তু বেশ অন্যরকম একটা গিফট অপশন হতে পারে। 

১৫. পোর্টেবল জুসার বটল:

জিম যাওয়া আপনার গার্লফ্রেন্ডের প্যাশন হয়ে থাকলে, আপনি তাকে একটি পোর্টেবল জুসার বটল গিফট করতে পারেন। 

এই জুসার বটলগুলো যেখানে-সেখানে চট করে ফল থেকে জুস বানিয়ে ফেলতে পারে। 

আর, এই মেশিনগুলো খুবই সুন্দর দেখতে আর আকারে ছোট হয়ে থাকে। 

তাই, আপনার প্রেমিকার কোনোভাবেই এটিকে ক্যারি করতে অসুবিধা হবে না।

১৬. অন-দ্য-গো হেয়ার কেয়ার কিট:

আপনি মাঝে-মধ্যেই আপনার প্রিয় মানুষটার কাছে শুনে থাকবেন, যে বাইরে বেরোলেই তার চুল নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। 

তাই, তার এই সমস্যা দূর করতে, আপনি তাকে কোনো ভালো অন-দ্য-গো হেয়ার কেয়ার কিট গিফট করতেই পারেন। 

এই কিটগুলো আপনার গার্লফ্রেন্ডের নরম, সুন্দর চুলকে আরও সিল্কি ও স্মুথ করে তুলবে।

১৭. হেয়ার স্টাইলার:

হেয়ারস্টাইলকে গুরুত্ব সহকারে নেওয়া মেয়েটির জন্য সবথেকে ভালো গিফ্ট হল যেকোনো মাল্টি-টুল হেয়ার স্টাইলার। 

যেই টুলটি চুল শুকানো করার জন্য কম সময় নেয়, কিংবা যেই টুলটি চুল স্মুথেনিং, ভলিউমিনাইজিঙ, কার্লিং করতে পারে, তা যেকোনো প্রেমিকার কাছেই আকর্ষণীয় একটা গিফট হয়ে যেতে পারে।

১৮. সেন্টেড ক্যান্ডেল:

আপনার প্রেমিকা মানুষটি যদি স্নানবিলাসী হয়ে থাকে, কিংবা সেন্টেড আইটেম পছন্দ করে থাকেন; তবে আপনি একটা সেন্টেড ক্যান্ডেলের সেট তাকে গিফট করতেই পারেন।

১৯. মেকআপ মিরর ও রিং লাইট কিট:

আপনার গার্লফ্রেন্ড কি একজন ইনফ্লুয়েন্সের বা মেকাপ করতে প্রচন্ড ভালোবাসে? 

তাহলে তো ডেফিনিটলি এই মেকআপ মিরর ও রিং লাইট কিটই হল তার জন্যে আপনার দেওয়া সেরা গিফট।

২০. ফ্যান্সি প্যাক:

যদি ট্রেন্ড ফলো করা আপনার প্রেমিকার স্টাইল হয়ে থাকে, তবে অবশ্যই আপনি তাকে একটি ক্রস-বডি ফ্যান্সি প্যাক গিফট করতে পারেন।

এইগুলো দেখতেও অনেকটা স্টাইলিশ আবার ব্যাপকভাবে ফাঙ্কশনালও বটে। 

তাই, আরামসে আপনি এটিকে আপনার গিফট লিস্টে রাখতে পারেন।

আমাদের শেষ কথা,,

গার্লফ্রেন্ডকে গিফট করার ক্ষেত্রে সেরা উপহার বাছার জন্য আপনাকে আলাদা করে কোনো চাপ নিতে হবে না। 

আসলে, আপনি চোখ বন্ধ করুন আর আপনার প্রেমিকা যা করতে ভালবাসে সেগুলি সম্পর্কে ভাবুন। 

সে কি করতে ভালোবাসে বা কোথায় সময় কাটাতে ভালোবাসে, শপিং করতে পছন্দ করে নাকি পড়াশোনা করতে ভালোবাসে;

প্রকৃত অর্থে তার পছন্দ-অপছন্দের তালিকার উপরই সম্পূর্ণভাবে তার গিফ্ট কি ধরণের হতে পারে, তা নির্ভর করে। 

তাই, নিজের ভালোবাসার মানুষটার পছন্দ-অপছন্দ সম্বন্ধে জেনে তবেই তাকে উপহার দিন, দেখবেন অবশ্যই তার পছন্দ হয়েছে।

আমাদের আজকের ‘গার্লফ্রেন্ডকে কি উপহার দেওয়া যায়‘ নিয়ে লেখা আর্টিকেলটি এখানেই শেষ হল। 

লেখাটি পছন্দ হলে অবশ্যই তা কমেন্টের মাধ্যমে জানাবেন।

 

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top
Copy link