বাড়িতে বসে ব্যবসা করার উপায় খুঁজছেন ? করুন এই ঘরোয়া ব্যবসা গুলো

বর্তমান সময়ে বাড়িতে বসে ব্যবসা (Home Based Business Ideas) করার ক্ষেত্রে প্রচুর সুযোগ আমাদের হাতে রয়েছে বললে আমি ভুল হবোনা।

Best Home based business ideas in Bengali

ঘরে বসে ব্যবসা করার জন্য প্রচুর ছোট-বড় ঘরোয়া ব্যবসার ধারণা (ideas) গুলো রয়েছে যেগুলো অনেকেই করে থাকেন।

এমনিতে, কম পুজিতে ঘরে বসে কি কি ব্যবসা করা যেতে পারে এই প্রশ্ন মহিলাদের কাছে অনেকটা গুরুত্বপূর্ণ।

কেননা, মেয়েদের জন্য ঘরোয়া ব্যবসা করার বিষয়টা আগের থেকেই এক অতি জরুরি এবং প্রয়োজনীয় বিষয় ছিল।

অনেক মেয়েরা বাইরে গিয়ে চাকরি করার বিপরীতে, ঘরে থেকে করা যেতে পারে এমন কিছু ব্যবসা করার ক্ষেত্রে অধিক রুচি রাখেন।

তবে, নিজের ঘর থেকে ব্যবসা কেবল মেয়েরাই নয়, যেকোনো ব্যক্তি করতে পারবেন।

যেকোনো ব্যক্তি যে টাকা রোজগার করার উদ্দেশ্যে কম পুঁজি লাগিয়ে ব্যবসা শুরু করতে চাইছেন, তারা এই ব্যবসা গুলো মধ্যে বেশিরভাগ অবশই করতে পারবেন।

এই প্রত্যেকটি ব্যবসা (business) আপনারা পার্ট-টাইম বা ফুল-টাইম দুভাবে নিয়েই করতে পারবেন।

এমনিতে যদিও ঘরে বসে প্রচুর রকমের ব্যবসা করা যেতে পারে, আমি আপনাদের কেবল সেই home based business গুলোর বিষয়ে বলবো যেগুলো কম পুজি লাগিয়ে সহজেই শুরু করা যাবে।

তাহলে চলুন, কম পুঁজিতে ঘরে বসে ব্যবসা শুরু করার ক্ষেত্রে সেরা কিছু ঘরোয়া ব্যবসার আইডিয়া (ধারণা) গুলো এক এক করে জেনেনেই।

বাড়িতে বসে কি কি ঘরোয়া ব্যবসা করা যাবে ? (সেরা ব্যবসার আইডিয়া গুলো)

ঘর থেকে কাজ করে টাকা আয় করাটা আজ কোনো নতুন ব্যাপার না।

আজ, অনেক মহিলারা, ছাত্ররা বা তারা যারা চাকরির বাইরেও একটি পার্ট-টাইম ব্যবসা করতে চাইছেন, বিভিন্ন ধরণের ব্যবসা গুলো নিজের ঘর থেকেই করছেন এবং ইনকাম করছেন।

তাই, আপনি যদি একজন housewife, job করা ব্যক্তি, নতুন করে গ্রাজুয়েট (Graduate) হয়েছেন বা যেকোনো ব্যক্তি যে ঘরে বসে বিজনেস শুরু করতে চাইছেন,

তাহলে টাকা রোজগার করার জন্য এই new home based business ideas in Bangla বা small business ideas গুলোর বিষয়ে জেনেনিন যেগুলো ঘর থেকেই করা যাবে।

ঘরে বসে কি কি ব্যবসা করা যায় ? (15+ Business Ideas)

নিচে যেগুলো ব্যবসার আইডিয়া (business ideas) গুলো আমি আপনাদের দিবো সেগুলো অনেক সহজে এবং কম পুঁজি লাগিয়ে শুরু করা যাবে।

ব্যবসা গুলোর মধ্যে কিছুটা এরকম কিছু বিজনেস আইডিয়া রয়েছে যেগুলো মূলত মেয়েদের জন্যই।

তবে, বেশির ভাগ ব্যবসা গুলো যেকোনো ব্যক্তিরা নিজের ঘর থেকে শুরু করতে পারবেন।

১. বেকারি (Bakery)

এই Bakery business অনেকেই একটি দারুন ঘরোয়া ব্যবসা হিসেবে নিয়ে করে চলেছেন।

কেননা, বিভিন্ন বেকারি বিসকুট, বন রুটি, কেক ইত্যাদি তৈরি করার জন্য একটি খালি জায়গার প্রয়োজন।

এবং, যদি আপনার ঘরে খালি জায়গা রয়েছে, তাহলে অবশই একটি bakery সেটআপ করে ব্যবসা শুরু করতে পারবেন।

এই ব্যবসাতে প্রচুর টাকা ইনকাম করার সম্ভাবনা রয়েছে এবং জেকেও সঠিক নিয়ম এর সাথে এই বিজনেস শুরু করতে পারবেন।

২. মেকআপ আর্টিস্ট

এই ব্যবসা মেয়েদের জন্য প্রচুর টাকা আয় করার অবশই একটি দারুন সুযোগ।

কারণ, বর্তমান সময়ে বিয়ে, ফাঙ্কশন, পার্টি ইত্যাদিতে যাওয়ার আগে মেয়েরা মেকআপ করে নিজেদের সুন্দর্য আরো বেশি বাড়িয়ে নিতে চান।

এক্ষেত্রে, প্রয়োজন হয়ে থাকে একজন professional makeup artist এর যে সম্পূর্ণ প্রফেশনাল ভাবে মেকআপ করার বিপরীতে কিছু টাকা নিয়ে থাকে।

তাই, আপনিও makeup এর course করে কিছুটা practice করে নিজের ঘর থেকে এই মেকআপ আর্টিস্ট হিসেবে ব্যবসা করতে পারবেন।

৩. টিউশন ক্লাস

টিউশন করিয়ে প্রচুর লোকেরা প্রচুর টাকা ঘরে বসেই আয় করছেন।

এমনিতে, টিউশন করানোকে একটি ব্যবসা বলাটা ঠিক হবেনা যদিও প্রফেশনাল ভাবে দেখলে এটা টাকা ইনকাম করার একটি দারুন উপায়।

আপনি সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত ব্যাচ হিসেবে টিউশন ক্লাস করাতে পারবেন।

প্রত্যেক ব্যাচ এর মধ্যে ১০ জন করে ছাত্র থেকেও অনেক।

তবে, টিউশন করানোর জন্য আপনাকে কোনো একটি subject এর মধ্যে expert হতে হবে।

পড়াশোনা ছাড়া, গান শেখানো, ছবি আঁকা শেখানো, গিটার বাজানো ইত্যাদি বিভিন্ন বিষিয়ে ক্লাস করিয়ে ইনকাম করতে পারবেন।

৪. Blogging (online business)

যদি আপনার মধ্যে basic computer এর সাথে internet ব্যবহারের জ্ঞান রয়েছে, তাহলে অবশই ব্লগিং করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

বিশ্বজুড়ে লক্ষ লক্ষ লোকেরা ঘরে বসে ব্লগিং করে মাসে প্রচুর টাকা ইনকাম করছেন।

সত্যি বললে, ব্লগিং করে অনেকেই মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা বা তার থেকেও অধিক আয় করে থাকেন।

যদি সবটা শিখে সঠিক ভাবে blogging করতে পারেন তাহলে ব্লগিং আপনার জীবন বদলে দিতে পারে।

আমি ২০২০ সালে নিজের চাকরি ছেড়ে ঘর থেকে ফুল-টাইম ব্লগিং করে যেকোনো সাধারণ চাকরির তুলনায় অধিক টাকা ইনকাম করছি।

তাই, আমার হিসেবে ঘরে বসে টাকা আয় করার ক্ষেত্রে ব্লগিং একটি সেরা এবং লাভজনক উপায়।

আপনারা, Google বা YouTube এর মাধ্যমে blogging এর বিষয়ে সবটা জেনেনিতে পারবেন।

Blogging এর মাধ্যমে টাকা ইনকাম করার আগে আপনাদের এই বিষয়ে শিখতে হবে –

৫. YouTube (online business)

একটি YouTube channel তৈরি করে আপনারা online প্রচুর income করতে পারবেন।

YouTube হলো একটি video sharing platform এবং Google এর পরে দ্বিতীয় সব থেকে জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন।

এখানে আপনারা নিজের একটি চ্যানেল তৈরি করে নিয়মিত নিজের বানানো ভিডিও কনটেন্ট গুলো আপলোড দিতে তবে।

এভাবে কাজ করতে থাকলে, অনেক তাড়াতাড়ি আপনার চ্যানেলে প্রচুর subscribers / views হয়ে যাবে এবং তারপর আপনি আপনার channel থেকে টাকা ইনকাম করার কথা ভাবতে পারবেন।

এটাও একটি অনেক জনপ্রিয় এবং লাভজনক অনলাইন ব্যবসার আইডিয়া।

মহিলাদের থেকে শুরু করে, ছাত্ররা, বয়স্ক লোকেরা প্রায় প্রত্যেকেই আজ নিজের একটি YouTube চ্যানেল তৈরি করে সেখান থেকে ইনকাম করছেন।

আমার হিসেবে, বর্তমান সময়ে কোনো টাকা না লাগিয়ে বাড়িতে বসে করতে পারা একটি সেরা এবং প্রচুর লাভজনক ঘরোয়া ব্যবসা হলো এটা।

৬. টিফিন সেবা

Tiffin service হলো বর্তমানের সেরা home-based business idea যেটা প্রচুর জায়গায় করা হয়।

আপনাকে নিজের ঘরে অধিক বেশি খাবার তৈরি করতে হবে এবং দপ্তর (office) ইত্যাদি তে কাজ করা লোকেদের সাপ্লাই করতে হবে।

অবশই, প্রথম অবস্থায় আপনাকে নিজের client base তৈরি করে নিতে হবে যারা আপনার থেকে খাবার গ্রহণ করবেন।

চাকরি করা লোকেরা ঘরের গরম গরম খাওয়ার খেতে পছন্দ করেন।

কিন্তু দুপুরের ভাগে চাকরি করা লোকেরা গরম গরম ঘরের সুস্বাধু খাবার খাবার সুযোগ পেয়ে থাকেননা।

তাই, আপনি চাকরি করা বিভিন্ন লোকেদের সাথে কথা বলে নিজের বানানো খাবার তাদেরকে সাপ্লাই দিতে পারবেন।

এই ব্যবসাতে আপনাকে কিছুটা পুঁজি (investment) লাগাতেই হবে কেননা খাবার ডেলিভারি করার জন্য আপনাকে আলাদা করে কর্মচারী (staff) রাখতে হয়।

৭. T-shirt printing & supply

বর্তমান সময়ে সুন্দর সুন্দর প্রিন্ট থাকা গেঞ্জি (t-shirt) গুলো লোকেরা অনেক পছন্দ করে থাকেন।

তাই, আপনি চাইলে নিজের ঘরে একটি t-shirt printing machine এর মাধ্যমে গেঞ্জি গুলোতে সুন্দর সুন্দর লেখা বা পিকচার প্রিন্ট করতে পারবেন।

এর জন্য আপনাকে একটি printing machine এবং কিছু এক কালারের গেঞ্জি কিনতে হবে।

আপনি নিজের তৈরি করা সুন্দর সুন্দর গেঞ্জি গুলোকে ভালো মার্জিন এর সাথে দোকানে দোকানে হোলসেল দামে বিক্রি করতে পারবেন।

৮. ব্যাগ তৈরি ও বিক্রি

বর্তমান সময়ে, বাজারের ব্যাগ হোক বা স্কুলের ব্যাগ বা মেয়েদের নেওয়া ব্যাগ গুলো, প্রত্যেকের চাহিদা প্রচুর।

তাই, আপনি নিজের ঘরে বিভিন্ন ধরণের ব্যাগ তৈরি করে সেগুলোকে হোলসেল দামে দোকানে দোকানে সাপ্লাই দিতে পারবেন।

এছাড়া, আপনি চাইলে সরাসরি ঘর থেকেও ব্যাগ গুলো বিক্রি করতে পারবেন তবে এর জন্য লোকেদের কাছে নিজের ব্যাগ এর ব্যবসার মার্কেটিং আপনাকে করতে হবে।

মহিলা বা পুরুষ জেকেও এই ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

৯. কাগজের প্লেট বাটি তৈরি

কাগজের প্লেট বাটি বর্তমান সময়ে বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রচুর পরিমানে ব্যবহার করা হয়।

তাই, কাগজের প্লেট তৈরি করার ব্যবসা কিন্তু ভালো লাভ আপনাকে করে দিতে পারে।

এক্ষেত্রে, আপনাকে কিছুটা টাকা ইনভেস্ট করতে হবে একটি প্লেট তৈরির মেশিন কেনার জন্য।

কাগজের প্লেট তৈরি করার মেশিন বিভিন্ন রকমের থাকতে পারে এবং প্রায় ৩৫ থেকে ৪০ হাজার টাকা লাগিয়ে এরকম একটি মেশিন কিনে নিতে পারবেন।

আপনাকে কেবল মেশিন এর মাধ্যমে প্লেট তৈরি করতে হবে এবং বাজারে সাপ্লাই করতে হবে।

আপনি চাইলে বিয়া, পার্টি ইত্যাদি বিভিন্ন ফাঙ্কশন গুলোর জন্য প্লেট এর অর্ডার নিতে পারবেন।

প্লেট সাপ্লাই করার জন্য আপনাকে একজন কর্মচারী অবশই রাখতে হবে।

তবে, আপনি নিজে করতে পারলে সেই কর্মচারীর খরচ আলাদা করে হবেনা।

১০. এফিলিয়েট মার্কেটিং (online)

Affiliate marketing অবশই একটি সেরা ঘরোয়া ব্যবসা যেটার মাধ্যমে প্রচুর টাকা ইনকাম করা সম্ভব।

এটা একটি অনলাইন বিজনেজ আইডিয়া (online business idea) যেখানে মূলত অন্যান্য ই-কমার্স কোম্পানি গুলোর পণ্য বা সেরা বিক্রি করিয়ে কমিশন ইনকাম করা হয়।

Affiliate marketing business জেকেও করতে পারবেন তবে শুরুতে আপনাকে অনেক কিছু শিখতে ও জানতে হবে।

ইন্টারনেট থেকে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সব থেকে লাভজনক উপায় গুলোর মধ্যে একে ধরা হয়।

আপনি সম্পূর্ণ কাজ কেবল একটি ল্যাপটপ বা কম্পিউটারের মাধ্যমে ঘরে বসেই করতে পারবেন।

১১. Network marketing

Network marketing একটি দারুন ব্যবসার ধারণা যদি আপনি সঠিক ভাবে করতে পেরেছেন।

এই ব্যবসা আপনারা চাইলে ঘর থেকে করতে পারবেন।

এখানে মূলত আপনাকে একটি ভালো network marketing company খুঁজে তার সাথে সংযুক্ত হতে হয়।

এবার, আপনাকে অন্যান্য ব্যক্তিদের সেই কোম্পানির পণ্য গুলো নেয়ার জন্য এবং কোম্পানির সাথে সংযুক্ত হওয়ার জন্য বলতে হয়।

এভাবে, আপনি আপনার নিচে যত বেশি লোকেদের সেই কোম্পানির সাথে সংযুক্ত করতে পারবেন ততটাই বেশি আপনি কমিশন ইনকাম করতে পারবেন।

এখানে, আপনি আপনার নিচে থাকা ব্যক্তিদের কাজের ওপরেও কমিশন পেয়ে থাকেন।

এটা মূলত একটি referral business model যেখানে আপনার কাজ হবে অধিক লোকেদের কোম্পানির সেবার সাথে সংযুক্ত করা।

১২. Mobile / computer repairing

আপনি যদি মোবাইল বা কম্পিউটার রিপেয়ার করার কাজ জেনে থাকেন তাহলে অবশই ঘর থেকেও মোবাইল রিপেয়ারিং এর কাজ করা যাবে।

আজকাল কম্পিউটার, টপটপ, মোবাইল প্রত্যেকের ঘরেই রয়েছে।

এবং, সেগুলো খারাপ হয়ে গেলে একজন ভালো রিপেয়ার করা ব্যক্তির প্রয়োজন প্রত্যেকের হয়ে থাকে।

১৩. সেলাইর কাজ

কাপড় জামা সেলাই করেও ঘর বসে ভালো টাকা ইনকাম করা যাবে।

আপনার কাছে যদি একটি ভালো সেলাই মেশিন আছে, তাহলে অবশই আপনিও এই কাজ করতে পারবেন।

আপনারা যদি কোনো বিশেষ রকমের কাপড় তৈরি করতে পারেন যেমন, বিয়ের কাপড়, শেরওয়ানি, কোট ইত্যাদি তাহলে প্রচুর ইনকাম সম্ভব।

আসে পাশে থাকা school ইত্যাদিতে গিয়ে ছাত্রদের জন্য uniforms তৈরির contract অবশই নিতে পারবেন।

তাই, সেলাই অবশই একটি ভালো ঘরোয়া ব্যবসার আইডিয়া যেটাকে মহিলারা বা পুরুষ জেকেও করতে পারবেন।

১৪. Content writing

কনটেন্ট রাইটিং আপনার জন্য একটি দারুন অনলাইন ব্যবসা হিসেবে প্রমাণিত হতে পারে।

ইন্টারনেটে প্রচুর website, blog, news portal ইত্যাদি রয়েছে যেগুলোতে আর্টিকেল / কনটেন্ট লেখার জন্য রাইটার এর প্রয়োজন হয়ে থাকে।

তাই, আপনি যদি লেখালেখি করে ভালো পান এবং কনটেন্ট রাইটিং এর অভিজ্ঞতা আপনার আছে, তাহলে এই কাজ করতে পারবেন।

Content / article writing এর কাজ খোঁজার জন্য আপনারা blogging এর সাথে জড়িত বিভিন্ন social media page বা groups গুলোতে গিয়ে কাজ খুঁজতে পারবেন।

এছাড়া, আপনারা website বা blog গুলোর মালিকের সাথে সরাসরি যোগাযোগ করেও কাজ খুঁজতে পারবেন।

১৫. Cloth selling business

অনেকেই আছেন, যারা নিজের ঘরে বিশেষ ধরণের কিছু পোশাক বা কাপড় অধিক পরিমানে কিনে রাখেন এবং সেগুলোকে বেশি দামে বিক্রি করেন।

আপনাকে, হোলসেল দামে কাপড় গুলো কিনে রাখতে হবে এবং সবাইকে জানাতে হবে যে আপনি এগুলো ঘর থেকেই বিক্রি করে থাকেন।

এভাবে, অনেক লোকেরা আপনার কাছে কাপড় কিনতে আসবেন।

তবে মনে রাখবেন, সব রকমের কাপড় লোকেরা আপনার কাছে কিনতে আসবেননা।

আপনাকে অনেক চিন্তা করে সিদ্ধান্ত নিতে হবে যে সহজে কোন কাপড় গুলো লোকেরা আপনার থেকে নিতে পারেন।

আমাদের শেষ কথা,,

বন্ধুরা, যদি আপনারা বাড়িতে বসে ব্যবসা করতে চাইছেন, তাহলে অবশই ওপরে বলা ব্যবসা গুলো আপনারা করতে পারবেন।

ঘরে বসে ব্যবসা করার ক্ষেত্রে আপনাকে এমন একটি business করতে হবে যেখানে বেশি জায়গার এবং কর্মচারীর প্রয়োজন না হয়ে থাকে।

এছাড়া, যেগুলো ব্যবসার আইডিয়া আমি ওপরে দিয়েছি সেগুলো অনেক সহজেই আপনারা শুরু করতে পারবেন।

আমাদের আজকের আর্টিকেল যদি আপনাদের পছন্দ হয়ে থাকে, তাহলে অবশই আর্টিকেলটি শেয়ার করবেন।

আর্টিকেলের সাথে জড়িত কোনো প্রশ্ন বা পরামর্শ থাকলে comment করে অবশই জানাবেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error:
Scroll to Top
Copy link