বান্ধবীর জন্য জন্মদিনের সেরা উপহার এর তালিকা – (জন্মদিনের গিফট)

জন্মদিনের উপহার মেয়েদের জন্য: যদি আপনিও বান্ধবীর জন্মদিনে সেরা উপহার কি দিবেন সেটা নিয়ে ভাবছেন, তাহলে চিন্তা করতে হবেনা। আজকের এই আর্টিকেলের মধ্যে আমি আপনাদের সেরা কয়েকটি মেয়েদের জন্য জন্মদিনের গিফট এর বিষয়ে বলবো যেগুলো আপনার বান্ধবী সত্যি পছন্দ করবেন। 

জন্মদিনের উপহার মেয়েদের জন্য
বান্ধবীর জন্য সেরা জন্মদিনের উপহার।

আমাদের সকলেরই কমবেশি বন্ধু বা বান্ধবী থাকে।

পড়াশোনা করার ক্ষেত্রে সহপাঠী হোক বা পাড়ায় একসাথে খেলাধুলা করে বড় হয়ে ওঠা সম/অসমবয়সী সাথী হোক, আমাদের জীবনে বন্ধুদের ভূমিকা অপরিসীম। 

বন্ধু বা বান্ধবী’র জন্মদিন আমাদের ক্ষেত্রে স্বভাবতই ভীষণ স্পেশাল হয়।

কাছের বন্ধুদের জন্মদিনের শুভেচ্ছার পাশাপাশি কিছু একটা উপহার না দিলেই চলে না।

কিন্তু আবার সেই উপহার আবার হতে হবে পকেট ফ্রেন্ডলি। 

এখানে কিছু এর মধ্যে সাধারণত এমন কিছু উপহার এর উদাহরণ দিচ্ছি। 

প্রিয় বান্ধবীর জন্য আপনি এই উপহার দিতে পারেন

১. আপনাদের বাজেট যদি হয় বেশ কয়েক হাজার টাকা, সকলে মিলে আপনারা জন্মদিনের দুপুর কিংবা রাত্রের খাওয়া দাওয়ার ব্যবস্থা করতে পারেন বন্ধুর জন্য। সকল বন্ধুরা মিলে খাওয়া দাওয়ায় জমে যাবে আপনার বন্ধুর জন্মদিনের দুপুর কিংবা রাত্রিটি। 

২. আপনি যদি মাঝারি বাজেটের উপহারের কথা ভাবেন তাহলে আপনার জন্য এই উপহারটি উপযুক্ত।

জন্মদিনে দিতে পারেন বন্ধুর প্রিয় ফ্লেভার এর কেক।

বেলুন দিয়ে গোটা ঘরটাকে সাজিয়ে কেকসহ রাত বারোটায় সারপ্রাইজ দেওয়ার মতো অন্য কোনো সুন্দর উপহার জন্মদিনে হতেই পারে না। 

৩. সমস্ত বন্ধুরা মিলে যদি জন্মদিনে আপনার রান্নাপ্রিয় বন্ধুকে উপহার দিতে চান, এই উপহারটি হবে তার জন্য উপযুক্ত। 

সে ক্ষেত্রে উপহারে আপনি দিতে পারেন মিক্সার গ্রাইন্ডার, স্যান্ডউইচ মেকার, টোস্টার, রাইস কুকার, ননস্টিক কুকওয়্যার সেট, মডিউলার ওভেন, মাইক্রোওভেন, ওটিজি, ইন্ডাকশন প্রভৃতি। অবশ্যই সে ক্ষেত্রে মার্কেট ভিজিট করে উপযুক্ত ব্র্যান্ড দেখে নেবেন৷ 

৪. আপনার প্রিয় বন্ধু বা বান্ধবী যদি শিল্পমনস্ক হন তাহলে এই গিফট হবে শো’জ টপার। 

আপনার পরিচিত কোন আর্টিস্টকে দিয়ে আঁকিয়ে নিন একটি পোর্টেট ছবি। ব্যাস সেটাকে বড়ো ফ্রেমে বাঁধিয়ে এই উপহার দিন। বন্ধু বা বান্ধবী সারাজীবন মাথায় তুলে রাখবে এই উপহার। 

৬. আপনার প্রিয় বন্ধু বা বান্ধবী যদি সাহিত্যমনস্ক হন তাহলে এই গিফট হবে শো’জ টপার। 

খোঁজ করে নিন বন্ধুর প্রিয় লেখক লেখিকা কবি সাহিত্যিকের নাম। এবার তাঁদের কিছু বই একটা সেট তৈরি করুন।

সেক্ষেত্রে দেখে নিতে হবে বন্ধু বা বান্ধবীর যেন সেই বই কালেকশনে না থাকে।

চটপট সেই তালিকা ধরে কিনুন আর বইয়ের সেটটি গিফট করুন। দেখবেন আপনার প্রিয় বন্ধু আহ্লাদে আটখানা হয়ে যাবে৷ 

৭. যদি আপনারা অনেক দিনের বন্ধু হন তা হলে নিশ্চয়ই দুজনের একসঙ্গে অনেক ছবি রয়েছে।

স্মৃতি বিজড়িত সেই সব ছবি দিয়ে বানাতে পারেন দারুণ একটি কোলাজ।

৮. সম্পর্ক যখন বন্ধুত্বের তখন চকোলেট তো খেতেই হবে। উপহার দেওয়ার জন্য বন্ধুকে দিতে পারেন ডার্ক চকোলেট, কেক, কুকিজের গিফট বাস্কেট। 

৯. আপনি যদি বন্ধু বা বান্ধবীর জন্য খুঁজছেন এক্কেবারে পকেট ফ্রেন্ডলি উপহার, অথচ চমকপ্রদ তাহলে অবশ্যই এই পয়েন্ট-টি মিস করবেন না।

বন্ধুর একটি ছবি নিয়ে পছন্দের কফি মাগে ল্যামিনেট করুন।

একজোড়া কফি মগ উপহার দিলে সেই কফি মগ হবে সারা জীবনের দারুণ উপহার। 

সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকেই ছোট থেকে বড় হওয়ার নানা ছবি পত্র দিয়ে থাকেন, এইসব ছবি জোগাড় করে ফটোগ্রাফি বার করুন।

আপনার পছন্দসই ফটো ফ্রেমে তা বাঁধিয়ে দিন। বছরের-পর-বছর যত্ন করে রেখে দেবে সেই গিফট আপনার বন্ধু বা বান্ধবী। 

১০. এখন অনলাইন বা অফলাইন বিভিন্ন স্টোরে গিফট ভাউচার এর ব্যবস্থা থাকে।

এক্ষেত্রে আপনাকে দেখে নিতে হবে আপনার বাজেট কত।

এবার, চটপট কিনে ফেলতে হবে একটি অনলাইন গিফট ভাউচার।

আপনার বন্ধু বা বান্ধবী পছন্দমত এবং প্রয়োজন মতো সেই গিফট ভাউচার ভাঙিয়ে যা খুশি কিনে নিতে পারেন।। 

১১. আপনি যদি উপহার কিনতে না চান বা কোন কারণে তা কিনতে সমর্থ না হয় অথচ প্রিয় বন্ধুর অনুষ্ঠানে খালি হাতে যেতে কুণ্ঠা বোধ করছেন তাহলে এই গিফট হবে আপনার অপশন। 

আপনার প্রিয় বন্ধুকে আরো একটি অমূল্য উপহার দিতে পারেন।

তার প্রিয়তমা পছন্দের একটি ফুল বা ফলের গাছ বন্ধুকে উপহার দিতে পারেন। 

১২. আপনার বন্ধু যদি ট্রেন্ডি হয় তাহলে তাকে উপহার দিতে পারেন মোবাইলের ফ্লিপ কভার, মেকআপ কিট, ডিজাইনড মগ, নোট খাতা, ডিজাইনড নকল নখ, ঘড়ি, টপস, চকোলেট এ ধরণের যেকোনো কিছু।

প্রতিটি গিফটকে অন্যদের দেয়া গিফটের চেয়ে একটু আলাদা করতে চাইলে গিফটের সাথে দিতে পারেন হাতে বানানো কোন কার্ড বা মিষ্টি একটি চিরকুট।

১২. আর বন্ধু যদি ক্ল্যাসি হয় তাহলে তো আরও ভালো কথা। তাকে উপহার দিন বই, ঘড়ি, সুগন্ধি মোমবাতি, তার পছন্দের পুরনো দিনের চলচ্চিত্রের সিডি, পেন্ডেন্ট, একটি ক্ল্যাসিক লিপস্টিক বা আই শ্যাডো বক্স। প্রিয় মানুষটার মুখে হাসি ফুটাতে আর কি লাগে!

স্পেশাল বান্ধবীর জন্য জন্মদিনের উপহার –

প্রত্যেকের জীবনেই কিছু স্পেশাল বান্ধবী থাকে। সেই প্রিয় এবং অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বান্ধবীকে এমন কিছু উপহার দিতে হবে যা অন্য সবার থেকে আলাদা এবং চমকপ্রদ।

তাই আপনার বাজেটের কথা মাথায় রেখে আমরা বেশ কিছু চমকপ্রদ উপহারের লিস্ট আপনাকে নিলাম। 

১. প্রিয় বান্ধবীর জন্মদিনে এক গোছা লাল গোলাপ হাতে নিয়ে তাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানান।

এমন গোলাপি অভিনন্দন হবে আর পাঁচটা বন্ধুর থেকে সম্পূর্ণ আলাদা এবং অভিনব। 

২. প্রিয় বান্ধবীর প্রিয় লিপস্টিকের কথা জেনে নিন। দরকার হলে তার প্রিয় ব্যান্ডের নাম জেনে নিন।

সেই কথা মাথায় রেখে আপনি উপহার দিন একটি প্রিয় রং এর এবং প্রিয় ব্র্যান্ডের লিপস্টিক।

এইটি আদতে দেখতে সাধারণ হলেও উপহার হিসাবে কিন্তু অসামান্য। সাধারনত স্পেশাল মানুষকেই, মানুষ এই লিপস্টিক উপহার দেয়। 

৩. আপনার প্রিয় বান্ধবী যদি মেকআপ করে থাকেন, তাহলে অবশই তাকে একটি ভালো ব্র্যান্ড এর মেকআপ কীট (makeup kit) কিনে দিতে পারেন।

৪. প্রিয় বান্ধবীকে যদি একটি ভালো ব্র্যান্ড এর হাত ঘড়ি উপহার দিয়ে থাকেন, তাহলে এর থেকে দারুন উপহার আর কি হতে পারে।

স্পেশাল বন্ধুর জন্য উপহার –

প্রত্যেক মেয়ের জীবনে কিছু স্পেশাল বন্ধু থাকে। সেই বন্ধুর জন্মদিনে এমন কিছু উপহার দিতে হবে যা চমকপ্রদক এবং সবার থেকে আলাদা। 

১. স্পেশাল বন্ধুর জন্মদিনে এক গোছা লাল গোলাপ হাতে নিয়ে তাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানান।

এমন গোলাপি অভিনন্দন হবে আর পাঁচটা বন্ধুর থেকে সম্পূর্ণ আলাদা এবং অভিনব। 

২. পারফিউম বা আতর হল খুব স্পেশাল একটি উপহার। আপনার বন্ধুকে একটি ইমপোর্টেড ব্রান্ডের পারফিউম দিতে পারেন।

৩. প্রিয় বন্ধুকে দিতে পারেন একটি ভালো ব্র্যান্ড এর শার্ট / টি-শার্ট / জিন্স বা অন্যান্য কাপড়।

 

আমাদের শেষ কথা,,

তাহলে আশা করছি, নিজের বন্ধু / বান্ধবীর জন্মদিনের উপহার / গিফট কি দিবেন সেটা বুঝতেই পেরেছেন।

ওপরে বলা মেয়েদের জন্মদিনের গিফট গুলো যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে, তাহলে অবশই কমেন্ট করে জানাবেন। 

এছাড়া, মেয়েদের জন্য জন্মদিনের উপহার আরো কি কি হতে পারে এনিয়ে আপনার মতামত আমাদের অবশই জানাতে পারেন।

 

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top
Copy link