সেরা ৯টি রিয়েল টাকা ইনকাম সাইট গুলোর তালিকা – নতুন লিস্ট

করোনার কবলে যদি এ বিশ্ব না পড়ত, তবে হয়তো এই ওয়ার্ক ফ্রম হোম বা বাড়িতে বসে নিজের স্কিল গুলো কাজে লাগিয়ে অনলাইনে রিয়েল টাকা ইনকাম করার কনসেপ্টই কখনো আসতো না। কিন্তু বাড়িতে বসেই যখন ইনকাম করা সম্ভব তবে আর দেড়ি কিসের? ইন্টারনেটে এমন প্রচুর অনলাইন রিয়েল ইনকাম সাইট গুলো উপলব্ধ রয়েছে, যেগুলিকে কাজে লাগিয়ে অনেকেই অনলাইনে নিয়মিত ইনকামের সুযোগ পাচ্ছেন।

রিয়েল ইনকাম সাইট
9 best websites to earn real money online.

আর তাই, ঘরে বসে টাকা ইনকাম করার সাইট গুলো উপলব্ধ থাকতে, অনলাইনে পার্ট-টাইম ইনকাম করাটা বর্তমান সময়ে অধিক সুবিধাজনক হয়ে দাঁড়িয়েছে। 

আপনারা যারা যারা এই আর্টিকেলটি পড়ছেন তাদের মাথায় নিশ্চয়ই প্রশ্ন আসছে যে, অনলাইনে রিয়েল টাকা ইনকাম করাটা কি এতটাই সহজ? এই রিয়েল ইনকাম ওয়েবসাইট গুলো কি সত্যি কার্যকর? আর যদি কার্যকর হয়েও থাকে, তাহলে আপনি কী করে এই ওয়েবসাইট গুলির থেকে ইনকাম করতে পারবেন?

অবশই পড়ুন: গুগল থেকে টাকা ইনকাম করার ৭টি উপায়

চিন্তা করতে হবেনা, কেননা আজকের এই আর্টিকেলের মধ্যে আমরা আপনাদের সম্পূর্ণ স্পষ্ট এবং পরিষ্কার ভাবে বলতে চলেছি যে, কোন কোন সাইট গুলি ব্যবহার করে অনলাইনে টাকা ইনকাম করা যাবে এবং ইনকাম করার জন্য কিসের কিসের প্রয়োজন হবে।

রিলেটেড: স্টুডেন্টদের জন্য অনলাইনে পার্ট টাইম জব

অনলাইনে ইনকাম করার জন্য কী কী স্কিল প্রয়োজন?

আপনি যদি গুগলে সার্চ করেন, “How to earn money without any skill” তবে হাজার হাজার ওয়েবসাইট বা ভিডিও পেয়ে যাবেন। কিন্তু কঠিন সত্যি হল কোনও স্কিল ছাড়া এই পৃথিবীতে কেউ কাউকে টাকা দেয় না।

তাই যদি সঠিক পথে সঠিক নিয়ম ও প্রক্রিয়া গুলিকে কাজে লাগিয়ে টাকা ইনকাম করতে চান তবে, নিচে দিয়ে দেওয়া এই স্কিল গুলির যেকোনো একটিও যদি আপনার মধ্যে থেকে থাকে, তাহলেও অনলাইন থেকে সত্যি ইনকাম করতে পারবেন।

  • ব্লগ রাইটিং
  • ফটো এডিটিং
  • ভিডিও এডিটিং
  • সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং
  • ট্রেডিং
  • এফিলিয়েট মার্কেটিং
  • এক্সেল
  • ফটোগ্রাফি
  • লাইফ কোচিং
  • কোডিং
  • গ্রাফিক্স ডিজাইনিং

উপরে উল্লেখিত এই স্কিলস গুলির বাইরেও আরো নানান স্কিলস গুলো রয়েছে, যেগুলি কাজে লাগিয়েও ইন্টারনেট থেকে অনলাইনে ইনকাম করা যায়।

রিয়েল টাকা ইনকাম করার সাইট গুলো সত্যিই টাকা দেয়?

যদি এককথায় বলতে হয়, তবে উত্তর হবে হ্যাঁ। কিন্তু এই অনলাইন রিয়েল ইনকাম সাইট গুলোর থেকে টাকা রোজগারের জন্য কিছু সাধারণ বিষয়গুলি আপনাকে মাথায় রাখতে হবে। আপনার কোনও বিষয়ে যত ভালো স্কিল থাকবে, ততই অধিক কাজ আসতে থাকবে আপনার কাছে। তাই নিজের স্কিল তৈরি করা জরুরি।

ভেবে দেখবেন, এই পৃথিবীর কোটি কোটি মানুষ এখন অনলাইনে ইনকাম করছে। তাই প্রতিযোগীতায় টিকে থাকতে যে কোনও একটা স্কিল দারুন ভাবে শিখুন। ধৈর্য হারালে চলবে না। কেবল টাকা ইনকামের সাইটে নিজের অ্যাকাউন্ট খুললেই আপনার কাছে কাজ আসবে না। তার জন্য আপনার প্রোফাইলটি ভালো ভাবে সাজাতে হবে এবং সঠিক সুযোগের জন্য কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে।

আপনি যদি সত্যিই অনলাইনে টাকা ইনকামের জন্য সুযোগ খোঁজেন তবে নিজের একটি দারুন পোর্টফোলিও তৈরি করুন।

যে ওয়েবসাইট থেকেই আপনি কাজ পান না কেন, যার জন্য কাজ করছেন তার সঙ্গে সম্পর্ক ভালো রাখুন। এতে পরবর্তীকালে কোনও ওয়েবসাইটের ভরসা ছাড়াই, কাজ পেয়ে যাবেন সহজেই।

সেরা অনলাইন রিয়েল ইনকাম সাইট গুলো কি কি: ৯টি

গোটা ইন্টারনেটে টাকা ইনকাম করার এরকম নানান সাইট গুলোর সংখ্যা প্রচুর। কিন্তু আজ যে ৯টি সাইটের কথা বলব সেগুলো অনেকেই ব্যবহার করছেন এবং অনলাইনে নিজের খালি সময়ে কাজ করে পার্ট-টাইম ইনকামের দারুন সুযোগ ও সুবিধা পেয়েছেন।

১. Swagbucks

অনলাইন সার্ভে করে টাকা ইনকামের সাইটগুলির মধ্যে, Swagbucks সবচেয়ে জনপ্রিয় ও ভরসাযোগ্য। আপনি যদি Swagbucks-এর কোনও সমীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন, তবে আপনি একটি ছোট অঙ্কের টাকা পুরস্কার হিসেবে পাবেন। যা আপনি সঙ্গে সঙ্গে রিডিমও করতে পারবেন।

এখানে এমন বেশ কয়েকটি সমীক্ষার কাজ থাকে, যা আপনি প্রতিদিন Swagbucks এর ওযেবসাইটে এসে সম্পূর্ণ করতে পারবেন। Amazon, Target, iTunes এবং অন্যান্য অনেক নাম করা ওয়েবসাইটের মাধ্যমে Swagbucks থেকে করা ইনকাম রিডিম করতে পারবেন।

সাইন আপ করলেই Swagbucks-এর তরফ থেকে আপনি $10 ইনকাম করবেন, যা আপনাকে আরও নতুন কাজ করতে উৎসাহিত করবে। এখানে শুধু সার্ভে করেই নয়, গেম খেলে, কেনা-কাটি করে আপনি রিয়েল টাকা ইনকাম করতে পারেন।

সুবিধা:

  • Signup bonus দেওয়া হয়।
  • নানান মাইক্রো টাস্ক গুলি করে ইনকাম করা যায়।
  • সার্ভে সম্পূর্ণ করে সহজেই ইনকাম করা সম্ভব।

২. Amazon Kindle Direct Publishing

আপনি যদি লেখা-লেখি করে অনলাইনে টাকা ইনকাম করতে চান তবে Amazon Kindle Direct Publishing আপনার কাছে একটা বিরাট বড় সুযোগ। এখানে আপনি সহজেই আপনার নিজের লেখা একটি বই বা ই-বুক আপলোড করতে পারেন।

এছাড়া, আপনার লেখা এই বই যদি আপনি অ্যামাজন কিন্ডলেও বিক্রি করতে চান তবে তাও করতে পারেন।

ধরা যাক, আপনি একটি উপন্যাস বা গল্প লিখেছেন এবং আপনি এটিকে বিক্রি করতে চান। অ্যামাজনের এই ওয়েবসাইটে আপনার বইটি আপলোড করার পর, সোশ্যাল মিডিয়া এবং ব্লগের মাধ্যমে অনলাইনে মার্কেটিং করতে পারবেন।

আপনি আপনার বইয়ের প্রতি কপি বিক্রির জন্য ৭০ শতাংশ পর্যন্ত কমিশন করতে পারেন। এই কাজের জন্য আপনি CHAT GPT-র মতো এআই টুল ব্যবহার করতে পারেন এবং সহজেই তৈরি করে নিতে পারবেন একটি আকর্ষণীয় ও দারুন ই-বুক।

সুবিধা:

  • ইচ্ছামতো একাধিক বই পাবলিশ করা যাবে।
  • ইবুকগুলি বিনামূল্যে তালিকাভুক্ত করা যাবে।
  • বিশ্বব্যাপী বিশাল দর্শকদের কাছে বই বিক্রির সুযোগ।

৩. NeoBux

Neobux মূলত একটি pay-to-click (PTC) platform যেখানে নানান বিজ্ঞাপন গুলি দেখার জন্য এবং বিজ্ঞাপন গুলিতে click করার জন্যও টাকা দেওয়া হয়।

বর্তমানের এই প্রযুক্তির যুগে অনলাইন টাকা ইনকামের বহু ওয়েবসাইট রয়েছে, কিন্তু NeoBux বহু সময় ধরেই সবচেয়ে বিশ্বস্ত ও গ্রহণযোগ্য সাইট হিসেবে অনেকের দ্বারা ব্যবহার করা হচ্ছে। এটি বলাই যায় NeoBux অন্যান্য PTC ওয়েবসাইটগুলির তুলনায় কিছুটা আলাদা কাজ অফার করে।

PTC ওয়েবসাইটগুলি সাধারণত সার্ভে, ভিডিও, গেম ইত্যাদির মাধ্যমে টাকা ইনকাম করার সুযোগ দিয়ে থাকে।

এই ওয়েবসাইটে থাকা রেফারেল প্রোগ্রাম থেকেও আবার টাকা ইনকাম করা যেতে পারে। এক্ষেত্রে, আপনার রেফারেল কোড যত অধিক শেয়ার হবে, ততই বেশি ইনকাম করতে পারবেন।

অনলাইনে টাকা ইনকাম করার এই সাইটে লগ ইন করার সাথে সাথে আপনি নানান মাধ্যমে টাকা আয় করতে শুরু করতে পারবেন। এছাড়া, এখানে ইনকামের কোনও নির্দিষ্ট অ্যামাউন্ট নেই। আপনি দিনে সর্বনিম্ম $৫ থেকে সর্বোচ্চ $৫০ ইনকাম করতে পারবেন।

এখানে, অনলাইনে গেম খেলে, বিজ্ঞাপন দেখে, নানান অফার গুলো সম্পূর্ণ করে, এদের রেফারাল প্রোগ্রাম এর মাধ্যমে, ইত্যাদি নানান মাধ্যমে ইনকামের সুযোগ আপনারা পাবেন। ইনকাম করা টাকা গুলি সরাসরি PayPal, bank transfer ইত্যাদির দ্বারা তুলে নেওয়ার অপশনও আপনারা পাবেন।

সুবিধা:

  • অনলাইনে এড দেখে টাকা ইনকাম করা যায়।
  • রেফার করে ইনকাম করার সুবিধা রয়েছে।
  • ইনকাম করা টাকা PayPal বা bank-এর দ্বারা তুলে নিতে পারবেন।

৪. ySense

ySense ওয়েবসাইটের পূর্বে নাম ছিল ClixSense। বর্তমানে সবচেয়ে জনপ্রিয় অনলাইন ইনকামের ওয়েবসাইটগুলির মধ্যে একটি আরেকটি। এই ওয়েবসাইটটিও বাকিদের মতোই GPT (Get-Paid-Two) মডেল ব্যবহার করে থাকে।

এছাড়া, টাকা ইনকামের জন্য এই সাইটে কোন ধরণের টাকা বিনিয়োগ করতে হয় না।

সার্ভে নেওয়ার পাশাপাশি, আপনি পোল বা বিভিন্ন অনলাইন গেম খেলে টাকা ইনকাম করতে পারেন, ক্যাশব্যাক পাওয়ার জন্য অনলাইনে কেনা-কাটা করতে পারেন, ভিডিও দেখতে পারেন এবং আরও অনেক কিছু করতে পারেন এই ওয়েবসাইটে।

আপনি যদি কোনো বন্ধুকে এই ওয়েবসাইটটি রেফার করেন, তাহলে তারা যা আয় করবে তার 10% আপনিও ইনকাম করবেন।

সুবিধা:

  • সার্ভে সম্পূর্ণ করে সহজেই ইনকাম করা যায়।
  • রেফার করে প্রতি রেফারে $0.10 থেকে $0.30 ইনকাম করা যায়।
  • টাকা তুলার জন্য PayPal এবং Gift cards-এর অপসন আছে।

৫. Freecash.com

Freecash.com অনলাইনে নানান ছোট ছোট কাজ গুলো করে টাকা ইনকামের আরেকটি সেরা ওয়েবসাইট। এখানে আপনি সার্ভে করে, app ইনস্টল করে, বিভিন্ন কাজ করে এবং গেম খেলে টাকা ইনকাম করতে পারেন।

প্রতি offer সম্পূর্ণ করার জন্য সর্বোচ্চ $35.46 পর্যন্ত ইনকাম সম্ভব এবং বর্তমানে প্রায় 485-টি উপলব্ধ অফার গুলো এই সাইটে রয়েছে। আপনি PayPal, Bitcoin, Gift Cards, ইত্যাদি নানান মাধ্যমে খুব সহজেই আপনার টাকা তুলতে পারবেন।

এই রিয়েল ইনকাম সাইটটিতে রয়েছে একটি লাভজনক referral system।

যখন কোনো ব্যক্তি আপনার রেফারাল লিংক বা কোড ব্যবহার করে এই সাইটে একাউন্ট খুলবেন এবং নানান মাধ্যমে ইনকাম করবেন, তখন তাদের ইনকামের ৫% থেকে সর্বোচ্চ ৩০% আলাদা ভাবে আপনাকে কমিশন হিসেবে দিয়ে দেওয়া হবে।

সুবিধা:

  • ইনকামের জন্য প্রচুর offer গুলো পাবেন।
  • ইনকাম করা টাকা bank transfer এবং PayPal দিয়ে তুলা যায়।
  • Game খেলে ইনকাম করার সুবিধা দেয়।

৬. Upwork

Upwork-এর নাম হয়তো আপনারা অনেকেই শুনেছেন। ফ্রিল্যান্সাররা এই ওয়েবসাইটে নিয়মিত কাজ পায়। আপনি যদি ভালোভাবে Upwork-এ একটি প্রোফাইল তৈরি করেন, তবে কিছু দিনের মধ্যেই আপনি পেয়ে যেতে পারেন ক্লাইন্ট।

আপনি ব্লগিং, ডিজাইন, প্রোগ্রামিং, ডিজিটাল মার্কেটিং, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট সহ অনেক ধরণের কাজ গুলো করে টাকা ইনকামের সুযোগ পেতে পারবেন। একবার আপনি যদি ক্লাইন্ট পেয়ে যান, তখন আপনার কাজ নিয়ে তার সঙ্গে আলোচনা করতে পারেন। যদি আপনার কাজ ক্লায়েন্টের কাছে উচ্চ-মানের মনে হয় তবে, পরবর্তীতে নিজে নিজেই কাজ পেতে থাকবেন।

বাড়িতে বসে ক্যারিয়ার গড়ার ক্ষেত্রে Upwork-এর মতো নানান জনপ্রিয় freelancing site গুলো ব্যবহার করতে পারবেন আপনি।

সুবিধা:

  • অনলাইনে টাকা ইনকামের রিয়েল সাইট এটি।
  • এখানে নিজের কৌশল এর ওপর ভিত্তি করে কাজ পাবেন।
  • নিয়মিত রোজগারের একটি রিয়েল প্লাটফর্ম।

৭. Udemy

বেশিরভাগ মানুষের জন্য Udemy একটি স্কিল ডেভেলপমেন্টের প্ল্যাটফর্ম হলেও, আপনার জন্য কিন্তু এটি অনলাইনে টাকা ইনকাম করার একটি সেরা সাইট হিসেবে প্রমাণিত হতে পারে। এই অনলাইন লার্নিং প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে আপনি একজন শিক্ষ হিসেবে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

এখানে মার্কেটিং থেকে কোডিং কিংবা গিটার শেখা থেকে ছবি আঁকা, সব ধরণের অনলাইন কোর্স ছাত্রদের জন্য তৈরি করা যায়। আপনার পড়ানোর দক্ষতা ও রেটিং যত ভালো হবে, আপনার কোর্সে ততই ছাত্র এনরোল করার সুযোগ হয়ে দাঁড়াবে।

Udemy প্ল্যাটফর্মটি কমিশন বেসিসে চলে। ধরুন আপনার তৈরি করা কোর্সের দাম ৪০০০টাকা। যখনই আপনার কোর্সে কেউ কিনে নিবেন, তখন এই ৪০০০ টাকার কিছু অংশ Udemy Company-টি রেখে বাকিটা আপনাকে দিয়ে দেবে।

দেশ-বিদেশের বহু শিক্ষকের টাকা ইনকামের প্রধান সোর্স Udemy-র মতো লার্নিং প্ল্যাটফর্ম গুলোই।

৮. Amazon Affiliate Program

Amazon Affiliate Program-এর মাধ্যমে আপনি সহজেই অনলাইনে টাকা ইনকাম করতে পারেন। আপনি Amazon Affiliate Program-এ যুক্ত হয়ে আপনার অ্যামাজন অ্যাসোসিয়েটস অ্যাকাউন্টটি বিনামূল্যে তৈরি করতে পারেন।

ওয়েবসাইটে যখন লগ ইন করবেন, তখন আপনার থেকে একটি ওয়েবসাইট লিঙ্ক চাওয়া হবে। আপনার যদি কোনও ওয়েবসাইট না থাকে, তবে আপনি আপনার ফেসবুক পেজ, ইউটিউব চ্যানেল ইত্যাদির লিঙ্কও দিতে পারেন।

অ্যাকাউন্ট তৈরি হওয়ার পরে, আপনি যে প্রোডাক্টটি বিক্রি করতে চান, তার অ্যাফিলিয়েট লিঙ্কটি সরাসরি পেয়ে যাবেন। এবার নিজের সুবিধা মতো, কোন প্রোডাক্টটির মার্কেটিং করবেন তা দেখে নিতে হবে। প্রতি প্রোডাক্ট বিক্রিতে ৩-১০ শতাংশ কমিশন দেয় Amazon।

৯. Getty Images

ইন্টারনেটে উপলব্ধ নানান জনপ্রিয় stock photography sites গুলির মধ্যে একটি হলো, Getty Images। এখানে থাকা high quality images গুলি বিশ্বজুড়ে নানান কোম্পানি এবং ব্যক্তিদের দ্বারা কেনা হয়।

আপনি চাইছে একজন ফটোগ্রাফার হিসেবে নিজের মোবাইল বা DSLR দিয়ে তুলে হাই কোয়ালিটি ছবি গুলিকে এই সাইটটিতে আপলোড করে সেগুলিকে বিক্রি করতে পারবেন।

আপনার আপলোড করা ছবি গুলি যদি কেও কিনে থাকে, সেক্ষেত্রে সেই বিক্রির ১৫% থেকে ৪৫% কমিশন আপনাকে দিয়ে দেওয়া হয়।

Contributor by Getty Images, নামে এদের একটি mobile app-ও উপলব্ধ রয়েছে যেটা ব্যবহার করে সরাসরি নিজের মোবাইল দিয়েই ছবি গুলিকে আপলোড করা যাবে। এই সাইট ব্যবহার করে অনেকেই কেবল ছবি বিক্রি করে দৈনিক ৪০০-৫০০ টাকা ইনকাম করে নিতে পারছেন।

অবশই পড়ুন: কিভাবে অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় করব?

FAQ: রিয়েল টাকা ইনকাম সাইট:

Q. কোন সাইট গুলি রিয়েল ইনকামের সুযোগ দেয়?

ইন্টারনেটে এমন প্রচুর ওয়েবসাইট রয়েছে যেগুলিতে নানান micro jobs গুলো করার মাধ্যমে ছোট ছোট পরিমানে টাকা ইনকাম করা সম্ভব। এদের মধ্যে কিছু সাইট গুলির নাম হলো, Swagbucks, Survey Junkie, InboxDollars, ySense, freecash.com ইত্যাদি।

Q. টাকা ইনকাম সাইট গুলি কি সত্যি টাকা দেয়?

ইন্টারনেটে ভালো এবং খারাপ দুধরণেরই ওয়েবসাইট গুলো আপনারা পাবেন। তাই, যদি একটি বিশ্বস্ত এবং জেনুইন ওয়েবসাইট ব্যবহার করে থাকেন, তাহলে টাকা সত্যি পাবেন। এই ধরণের ওয়েবসাইট গুলির থেকে টাকা ইনকাম হয়না বলে কিন্তু বলা যাবেনা।

Q. ইনকাম করা টাকা কিভাবে তুলবেন?

অনলাইনে রিয়েল টাকা ইনকাম করার এই সাইট গুলিতে টাকা তুলার জন্য নানান অপসন গুলো দেওয়া হয়। বেশিরভাগ সাইট গুলিতেই ইনকাম করা টাকা তুলার জন্য PayPal এবং Gift cards-এর অপসন দেওয়া থাকে। এর বাইরেও কিছু কিছু সাইট গুলি আপনাকে bank transfer-এর মাধমেও টাকা তুলার অপসন দিয়ে থাকে।

উপসংহার:

নিজের খালি সময়ে ঘরে বসে কাজ করে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সাইট গুলো ব্যবহার করার সময় আপনাকে সতর্ক থাকা দরকার। কেননা, এমন অনেক ওয়েবসাইট আছে যেগুলিতে কাজ করার পর পেমেন্ট করা হয়না। আবার, কোনো কারণ ছাড়া আপনার একাউন্ট block করে দিতেও পারে।

এছাড়া, টাকা ইনকাম সাইট গুলি ব্যবহার করার আগে সবসময় সাইট গুলির বিষয়ে অনলাইনে সার্চ করে দেখবেন। সাইট এর বিষয়ে অন্যান্য ইউসাররা কি বলছেন, সাইটটি সত্যি পেমেন্ট করে কি না, এই সাধারণ বিষয় গুলি ভালো করে জেনে নিয়েই সাইট গুলো ব্যবহার করা দরকার।

অনলাইন ইনকাম করার ওয়েবসাইট গুলি নিয়ে লিখা আমাদের আজকের আর্টিকেলটি আপনাদের কেমন লাগলো, সেটা নিচে কমেন্ট করে অবশই জানিয়ে দিবেন। এছাড়া, আর্টিকেলটি ভালো লাগলে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে ভুলবেননা কিন্তু।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top