কিভাবে ইন্টারনেট থেকে টাকা ইনকাম করব? ৯টি কার্যকর উপায়

কিভাবে ইন্টারনেট থেকে টাকা ইনকাম করব: চাকরি বা পড়াশোনার পাশাপাশি যদি আপনার কাছে ২ থেকে ৩ ঘন্টার খালি সময় থেকে থাকে এবং যদি পার্ট-টাইম কাজ করে কিছু অতিরিক্ত টাকা ইনকাম করতে চান, সেক্ষেত্রে ইন্টারনেটে এমন নানান প্লাটফর্ম এবং উপায় গুলি রয়েছে, যেগুলিকে আপনারা কাজে লাগাতে পারবেন।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে, অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করব কিভাবে? ইনকাম করার জন্য কি কি লাগবে এবং কোন কোন ধাপ গুলি অনুসরণ করতে হবে?

আপনাকে চিন্তা করতে হবেনা, কেননা আমি নিজেই গত ৬ থেকে ৭ বছর থেকে ইন্টারনেটের মাধ্যমে অনলাইন ইনকাম করছি এবং আমি আমার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে আপনাদের প্রত্যেকটি উপায়ের বিষয়ে অনেক ভালো করে বুঝিয়ে বলবো।

চলুন, অনলাইনে কিভাবে টাকা ইনকাম করব বিষয়টি নিচে আমরা সরাসরি জেনেনেই।

আমি কি ইন্টারনেট থেকে সত্যি টাকা ইনকাম করতে পারব?

হ্যা, আপনি, আমি বা জেকেও অনলাইন থেকে টাকা অবশই ইনকাম করতে পারবো। তবে এর জন্য যেই জিনিষটা সব থেকে বেশি জরুরি সেটা হলো, অনলাইনে ইনকাম করার একটি কার্যকর এবং বিশ্বস্ত উপায় বা প্লাটফর্ম ব্যবহার করার।

অনলাইনে টাকা ইনকাম করার বিষয়টা বর্তমানে প্রচুর জনপ্রিয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। কেননা, এর দ্বারা লোকেরা নিজের ঘরে বসেই কেবল একটি ল্যাপটপ এবং ইন্টারনেটের মাধ্যমে পার্ট-টাইম কিছু অতিরিক্ত টাকা ইনকামের সুযোক পেয়ে যান।

ফ্রিল্যান্স কনটেন্ট রাইটিং থেকে শুরু করে নিজের একটি অনলাইন ই-কমার্স স্টোর সেটআপ করা পর্যন্ত, অনলাইনে টাকা ইনকাম করার বৈধ উপায় অনেক আছে।

ইন্টারনেট থেকে কি দ্রুত অর্থ উপার্জন করা যায়?

অনলাইনে কিভাবে টাকা ইনকাম করব? আপনি যদি এই সম্পর্কে ভাবছেন এবং ইন্টারনেটে সার্চ করছেন, তাহলে দ্রুত টাকা ইনকামের প্রতিশ্রুতি দেয় এমন নানান ওয়েবসাইট বা কুইক আর্নিং স্কিম গুলি পেয়ে যাবেন।

তবে মনে রাখা দরকার যে, এদের মধ্যে বেশিরভাগই কিন্তু স্ক্যাম এবং এই ধরণের স্ক্যামগুলির ফাঁদে পড়লে চলবেনা, আপনাকে এগুলি এড়িয়ে চলতে হবে।

আপনাকে অনলাইনে নানান ব্যক্তিরা, ঘরে বসে রাতারাতি দ্রুত টাকা ইনকামের নানান ব্যবসার ধারণা বা পরামর্শ গুলি অবশই দিতে পারে, তবে এই ধরনের অফারগুলি থেকে দূরে থাকাই ভাল।

যদিও ইন্টারনেট থেকে রিয়েল টাকা ইনকাম করার অসংখ্য উপায় গুলি রয়েছে, তবে এক্ষেত্রে আপনার সব সময় সতর্ক থাকা দরকার।

বেশির লোকেরা যারা দ্রুত টাকা ইনকাম বা রাতারাতি হাজার হাজার ডলার ইনকাম করার কথা আপনাকে বলে থাকেন এবং দাবি করেন, তাদের বেশিরভাগেই সম্ভবত আপনাকে ভুল ভাল বলে আপনার থেকে অর্থ আদায় করার চেষ্টা করেন।

তাই, খানিকটা কষ্ট হলেও এবং কিছুটা সময় লাগলেও, আপনাকে সবসময় অনলাইনে টাকা ইনকাম করার প্রমাণিত, বৈধ এবং কার্যকর উপায় গুলি ব্যবহার করাটা জরুরি।

ইন্টারনেট থেকে তাড়াতাড়ি টাকা ইনকাম করতে চাইলে, আপনাকে এমন উপায় বা কাজ গুলিতে মনোনিবেশ করা দরকার, যেগুলির বিষয়ে আপনি আগের থেকেই কিছুটা হলেও জ্ঞান রাখেন।

সোজা এবং শর্টকাটভাবে বললে, ইন্টারনেট থেকে টাকা ইনকামের আমি যেই উপায় গুলি বলতে চলেছি, সেগুলির বেশিরভাগ থেকেই অনেক দ্রুত বা রাতারাতি টাকা ইনকাম করা যাবেনা।

তবে হ্যা, সঠিক নিয়ম অনুসরণ করে নিয়মিত কাজ করতে পারলে, এই উপায় গুলির দ্বারা আনলিমিটেড টাকা ইনকাম করার দারুন সুযোগও রয়েছে। অনেকেই করছেন।

আমি অনলাইনে কিভাবে টাকা ইনকাম করব? উপায় গুলির তালিকা

অনলাইনে কিভাবে টাকা ইনকাম করব
Top 9 Ways To Earn Money Online From Internet.

অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করার এমনিতে নানা উপায় গুলি রয়েছে।

নিচে আমি আপনাদের সাথে সেই প্রত্যেকটি উপায় নিয়ে আলোচনা করবো যেগুলি আমার হিসেবে সেরা এবং যেগুলির জন্য দিনে ৩ থেকে ৪ ঘন্টার সময় দিয়ে কাজ করলেই যথেষ্ট।

তাহলে চলুন, নিচে জেনেনেই আমরা অনলাইনে কি কি মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে পারব।

অনলাইন ইনকামের পদ্ধতি:কি কাজ করতে হয়:
১. ফ্রিল্যান্স কাজ খুঁজুনছোট-বড় প্রজেক্টস গুলি সম্পূর্ণ করতে হয়।
২. ইউটিউব চ্যানেল শুরু করুননিজের ভিডিও কনটেন্ট গুলির থেকে ইনকাম।
৩. ড্রপশিপিং করে ইনকামঅনলাইনে পণ্যের বেচা-কেনা করা।
৪. অনলাইনে সার্ভে সম্পূর্ণ করে ইনকামপেইড সার্ভে সম্পূর্ণ করতে হবে।
৫. ব্লগিং করে আয়ব্লগ সাইট তৈরি করতে হয়।
৬. নিজের ই-বুক তৈরি করুনডিজিটাল বই তৈরি করে পাবলিশ করা।
৭. অ্যাপ তৈরি করে আয়নিজের অ্যাপে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে।
৮. সোশ্যাল মিডিয়া থেকে ইনকামসোশ্যাল মিডিয়া পেজ/প্রোফাইল দ্বারা।
৯. অনলাইনে ছবি বিক্রি করুনছবি তুলে সেগুলিকে অনলাইনে বিক্রি করা।

উপরে, ইন্টারনেট থেকে টাকা ইনকাম করার যেই উপায় গুলির বিষয়ে আমি বললাম, সেগুলি ১০০% প্রমাণিত এবং কার্যকর। তাছাড়া, এই উপায় গুলির মধ্যে অনেকগুলি উপায় ব্যবহার করে আমি নিজেই অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করতে পেরেছি।

ইন্টারনেটে গিয়ে খানিকটা সার্চ করলেই আপনারা দেখে নিতে পারবেন, এই সমস্ত উপায় গুলি কাজে লাগিয়ে হাজার হাজার লোকেরা প্রতি মাসে প্রচুর টাকা আয় করার সুযোগ পাচ্ছেন।

রিলেটেড:

কিভাবে ইন্টারনেট থেকে টাকা ইনকাম করব? সহজ ৯টি উপায়

যা আমরা উপরে আগেই বলেছি, অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করার উপায় এমনিতে অনেক রয়েছে। নিচে আমরা সেরা ৯ টি প্রমাণিত এবং কার্যকর উপায় গুলির বিষয়ে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করেছি। তাই, আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়ুন।

১. ফ্রিল্যান্স কাজ খুঁজুন:

ফ্রিল্যান্স কাজ মানে হলো, চুক্তি হিসেবে করা যেকোনো কাজ বা প্রজেক্ট যেটিকে আপনি স্বাধীন ভাবে পছন্দের যেকোনো জায়গার থেকে সম্পূর্ণ করে থাকেন।

ইন্টারনেটে আপনারা প্রচুর ফ্রিল্যান্স জবস গুলি পেয়ে যাবেন, এছাড়া অনলাইনে এমন নানান ফ্রিল্যান্সিং ওয়েবসাইট গুলিও আছে যেগুলিতে নানান ফ্রিল্যান্সিং কাজ গুলি পাওয়া যায়।

এক্ষেত্রে কাজ খুজার জন্য আপনারা Fiverr, Upwork, Freelancer.com, ইত্যাদির মতো নানান সাইট গুলি ব্যবহার করতে পারবেন। সাইট গুলিতে আপনারা প্রচুর remote freelance jobs গুলি আরামে পেয়ে যাবেন।

এমনিতে, ফ্রিল্যান্সিং কাজ বলতে সেটা আবার যেকোনো ধরণের কাজই হতে পারে।

তবে ফ্রিল্যান্সিং করার জন্য, আপনার কাছে একটি বা একাধিক কাজের দক্ষতা এবং অভিজ্ঞতা থাকা দরকার। এতে, আপনি নিজের দক্ষতা এবং অভিজ্ঞতা গুলিকে কাজে লাগিয়ে সেগুলিকে অন্যান্য নানান কোম্পানি বা সংস্থা গুলিকে পরিষেবা হিসেবে প্রদান করতে পারবেন।

একজন Freelancer হিসেবে আপনি, web designers, project managers, content writers, graphic designers, video editors, app/website developers, এবং অন্যান্য বিশেষজ্ঞ হিসেবে নানান কাজ গুলি করতে পারবেন।

বিশ্বজুড়ে কয়েক মিলিয়ন লোকেরা এই ধরণের নানান freelancing website গুলির থেকে তাদের পছন্দমতো নানান ফ্রিল্যান্সিং কাজ গুলি খুঁজে সেগুলি সম্পূর্ণ করে অনলাইন মাধ্যমে ইনকাম করছেন।

ভালো কথা এটাই যে, বেশিরভাগ freelancing marketplace গুলি কিন্তু ফ্রি, তাই একটি সম্পূর্ণ ফ্রি একাউন্ট তৈরি করে সরাসরি জেকেও অনলাইনে নানান কাজ/প্রজেক্টস গুলি খুঁজতে পারবেন।

২. ইউটিউব চ্যানেল শুরু করুন:

আপনার কাছে যদি একটি ইউটিউব চ্যানেল থাকে এবং সেটিতে যদি যথেষ্ট পরিমান সাবস্ক্রাইবার এবং ভিউস হয়, তাহলে আপনি আপনার ইউটিউব চ্যানেল থেকে নানান মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

এমনকি, বর্তমান সময়ে অনলাইন মাধ্যমে টাকা আয় করার একটি জনপ্রিয় এবং লাভজনক উপায় হিসেবে ইউটিউবকে অনেকেই বেছে নিচ্ছেন।

নিজের ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করা ভিডিও গুলির থেকে টাকা ইনকাম করার সব থেকে সোজা এবং কার্যকর উপায়টি হলো, Google AdSense।

বেশিরভাগ ইউটিউবাররা তাদের ভিডিও গুলিতে এডসেন্স দ্বারা দেখানো বিজ্ঞাপন গুলি দেখিয়ে নিয়মিত ডলারে টাকা ইনকাম করে থাকেন।

এতে, যখনই কোনো ইউজার আপনার ভিডিওতে কোনো ধরণের বিজ্ঞাপন দেখেন বা বিজ্ঞাপন গুলিতে ক্লিক করেন, আপনি আপনার এডসেন্স একাউন্টে টাকা পেয়ে যান।

অনলাইনে নিজের ইউটিউব চ্যানেল থেকে ইনকাম করার অন্যান্য আরো জনপ্রিয় উপায় কিছু রয়েছে। যেমন ধরুন, affiliate marketing, paid promotion, sponsored content, ইত্যাদি।

একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করার প্রক্রিয়া অনেক সোজা এবং জেকেও নিজের মোবাইল থেকেই চ্যানেল তৈরি করে কাজ শুরু করতে পারবেন।

অবশই পড়ুন: ফ্রিতে অনলাইনে ইনকাম করার সাইট

৩. ড্রপশিপিং করে ইনকাম:

ড্রপশিপিং আপনার জন্য একটি অনেক লাভজনক অনলাইন ইনকাম মডেল হিসেবে প্রমাণিত হতে পারে। ড্রপশিপিং এমনিতে একটি ই-কমার্স প্লাটফর্ম এর মতোই, যেখানে অনলাইন মাধ্যমে লোকেরা নানান পণ্য গুলি কেনা-বেচা করে।

তবে এক্ষেত্রে আপনাকে নিজের তরফ থেকে কোনো ধরণের স্টক বা ইনভেন্টরি মেইনটেইন করতে হয়না। এছাড়া, পণ্য ডেলিভারি এবং রিটার্ন নিয়েও আপনার কোনো ধরণের মাথা বেথা নেই।

আপনাকে যা করতে হবে সেটা হলো, অনলাইনে নানান মাধ্যমে নতুন নতুন গ্রাহক খুঁজতে হবে। এক্ষেত্রে আপনাকে নানান অনলাইন মার্কেটিং কৌশল এবং বিজ্ঞাপনের সাহায্য নিতে হয়।

কম্পিউটার, জামাকাপড়, খেলনা এবং স্বাস্থ্য রিলেটেড খাবারের মতো নানান পণ্য গুলি বিক্রি করেন এমন প্রচুর সাপ্লায়ার আপনি পেয়ে যাবেন, যাদের সাথে চুক্তি করে কাজ শুরু করতে পারবেন।

তবে এর পর যেই জরুরি জিনিসটি আপনার কাছে থাকা দরকার সেটা হলো, একটি website/app বা e-commerce storefront, যার সাহায্যে আপনি পণ্য গুলিকে প্রচার করে বিক্রি করবেন।

এই অনলাইন ব্যবসাটি সম্পূর্ণ ভাবে একটি ই-কমার্স ব্যবসার মতোই, তবে এক্ষেত্রে আপনাকে নিজের কাছে কোনো ধরণের স্টক বা ইনভেন্টরি রাখতে হয়না।

এতে, একেবারে কম বিনিয়োগের সাথে এই অনলাইন ব্যবসা শুরু করার সুযোগ পাওয়া যেতে পারে।

অবশই পড়ুন: প্রতি মাসে ৫০ হাজার টাকা আয় করার কার্যকর উপায়

৪. অনলাইনে সার্ভে সম্পূর্ণ করে ইনকাম:

অনেকেই বিশ্বাস করতে চাইনা, তবে ইন্টারনেট থেকে অনলাইন মাধ্যমে টাকা আয় করার আরেকটি কার্যকর উপায় হলো, অনলাইন পেইড সার্ভে গুলি সম্পূর্ণ করা।

এই মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে বেশি সময় লাগেনা, বলার মানে হলো আপনি সার্ভে গুলিকে সঠিক ভাবে সম্পূর্ণ করলেই, সাথে সাথে আপনাকে টাকা দিয়ে দেওয়া হয়।

সার্ভে গুলিতে কত গুলি প্রশ্ন করা হবে এবং প্রতিটি সার্ভে কত বড়, এর ওপর নির্ভর করে প্রতিটি সার্ভের জন্য আপনাকে কিছু পরিমান টাকা দিয়ে দেওয়া হয়।

সাধারণত, দিনে ২ থেকে ৩ ঘন্টা কাজ করলেই, মাসের পকেট খরচ বের করার মতো ইনকাম অবশই করতে পারবেন। এক্ষেত্রে, কাজ শুরু করার জন্য আপনাকে, সার্ভে সম্পূর্ণ করে ইনকাম করার যায় এমন একটি ভালো সাইটে গিয়ে একটি ফ্রি একাউন্ট তৈরি করতে হবে।

মনে রাখবেন, সার্ভে সম্পূর্ণ করে ইনকাম করার আলাদা আলাদা ওয়েবসাইট গুলিতে আলাদা আলাদা পরিমানে রিওয়ার্ড অফার করা হয়।

ঘরে বসে অনলাইন টাকা আয় করার জন্য আপনারা এই paid survey website গুলিতে গিয়ে দেখতে পারেন,

  • Swagbucks,
  • Toluna,
  • Survey Junkie,
  • InboxDollars,
  • PrizeRebel,
  • ySense,
  • Poll Pay.

৫. ব্লগিং করে আয়:

বর্তমান সময়ে একটি ব্লগ আপনার জন্য একটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ online money-making tool হিসেবে প্রমাণিত হতে পারে। কারণ, একটি ব্লগ সাইট তৈরি করার প্রক্রিয়া অনেক সোজা এবং জেকেও সহজেই তৈরি করে নিতে পারেন। এছাড়া, ব্লগ সাইট তৈরি করে অনলাইনে নানান মাধ্যমে টাকা ইনকাম করা যেতে পারে।

আপনার যদি কোনো একটি বিশেষ বিষয়ে ভালো রকমের জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা থেকে থাকে, সেক্ষেত্রে আপনি সেই বিষয়ে একটি ভিডিও কোর্স তৈরি করে সেটিকে নিজের ব্লগ সাইট এর দ্বারা বিক্রি করে অনলাইনে ভালো মানের টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

এছাড়া, যদি আপনার ব্লগ সাইটটি একটি নির্দিষ্ট নিশ বা বিষয় নিয়ে তৈরি, সেক্ষেত্রে সেই বিষয়ের সাথে জড়িত নানান এফিলিয়েট পণ্য, ডিজিটাল পণ্য বা পরিষেবা গুলি নিজের ব্লগ থেকেই সরাসরি বিক্রি করিয়ে ইনকাম করতে পারবেন।

যদি আপনার কাছে নিজের একটি অনলাইন ভিডিও কোর্স বা পণ্য নেই, সেক্ষেত্রে এফিলিয়েট মার্কেটিং এর সাহায্যে নানান এফিলিয়েট পণ্য গুলি নিজের ব্লগ দ্বারা প্রচার ও বিক্রি করে নিয়মিত কমিশন আয় করতে পারেন।

Affiliate marketing হলো অনলাইন ইনকামের এমন একটি সেরা উপায়, যেখানে অন্যান্য কোম্পানি, ব্র্যান্ড বা লোকেদের পণ্য এবং পরিষেবা গুলি নিজের ব্লগ বা ওয়েবসাইট দ্বারা প্রচার ও বিক্রি করিয়ে টাকা ইনকাম করা যায়।

ইন্টারনেটে এমন নানান কোম্পানি এবং এফিলিয়েট নেটওয়ার্ক গুলি পাবেন যেগুলিতে নিজের একটি ফ্রি এফিলিয়েট একাউন্ট তৈরি করে পছন্দমতো তাদের পণ্য ও পরিষেবা গুলি প্রচার করতে পারবেন।

নিজের ব্লগ সাইট থেকে টাকা ইনকাম করার আরেকটি দারুন ও সোজা উপায় হলো, “গুগল এডসেন্স”।

Google AdSense হলো একটি অনলাইন advertisement company, যেখানে একজন ব্লগার হিসেবে জেকেও নিজের একটি ফ্রি একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন।

একাউন্ট তৈরির পর যদি গুগল দ্বারা আপনার ব্লগ সাইটটি এপ্রুভ করা হয়, তারপর গুগল এডসেন্স আপনার ওয়েবসাইট/ব্লগে কিছু বিজ্ঞাপন দেখানো হবে।

যখনই কোনো ব্যক্তি আপনার ব্লগে দেখানো বিজ্ঞাপন গুলি দেখেন এবং ক্লিক করেন, আপনার গুগল এডসেন্স একাউন্টে আপনি ডলার হিসেবে কিছু টাকা পেয়ে যাবেন।

Google AdSense, বর্তমান সময়ে একটি ব্লগ সাইট থেকে তাড়াতাড়ি এবং কার্যকর ভাবে টাকা ইনকামের একটি সেরা উপায় বলে প্রমাণিত হয়েছে।

অবশই পড়ুন: গুগল থেকে টাকা ইনকাম করার ৭টি উপায়

৬. নিজের ই-বুক তৈরি করুন:

আপনার যদি কোনো নির্দিষ্ট বিষয় সম্পর্কে ভালো জ্ঞান, দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা থাকে, সেক্ষেত্রে আপনি চাইলে একটি digital e-book তৈরি করে সেটিকে ইন্টারনেটে পাবলিশ করে বিক্রিও করতে পারবেন।

তবে মনে রাখবেন, এক্ষেত্রে আপনার একটি blog বা social media page থাকা জরুরি। এতে আপনি আপনার তৈরি করা ই-বুকটি সরাসরি নিজের ব্লগ বা সোশ্যাল মিডিয়ার শ্রোতাদের কাছে বিক্রি করে অনলাইনে ইনকাম করার সুযোগ পাবেন।

এছাড়া, আপনি চাইলে নিজের তৈরি করা digital e-book গুলি Amazon Kindle Direct Publishing-এর মতো প্লাটফর্ম দাড়াও অনলাইনে বিক্রি করতে পারবেন।

অবশই পড়ুন: অনলাইনে প্রতিদিন 200 টাকা ইনকাম করা উপায়?

৭. অ্যাপ তৈরি করে আয়:

ইন্টারনেট থেকে টাকা ইনকাম করার আরেকটি দুর্দান্ত উপায় হলো, নিজের একটি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ বা গেম তৈরি করে সেটিকে Google Play Store-এর মধ্যে পাবলিশ করা।

বর্তমান সময়ে হাজার হাজার অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস গুলি প্রতিদিন Google Play Store-এর মধ্যে পাবলিশ করা হয়। কেন? কি কারণে লোকেরা পাবলিশ করেন?

এর উত্তর সোজা, যখন অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস গুলি লোকেরা গুগল প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করে ব্যবহার করেন, তখন সেগুলিতে প্রচুর বিজ্ঞাপন দেখানো হয়।

এই বিজ্ঞাপন গুলির থেকে অ্যাপ এর মালিক নিয়মিত প্রচুর টাকা ইনকাম করেন। অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ গুলিতে বিজ্ঞাপন দেখানোর জন্য মূলত Google-এর AdMob প্লাটফর্মটি ব্যবহার করা হয়।

আপনি যদি কোডিং জানেননা, সেক্ষেত্রে একটি ভালো ডেভেলপার দ্বারা নিজের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ তৈরি করিয়ে নিতে পারেন।

এছাড়া, ইন্টারনেটে এমন নানান অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস তৈরির ওয়েবসাইট আছে, যেগুলির থেকে কোনো ধরণের কোডিং ছাড়া অটোমেটিক ভাবে একটি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ তৈরি করে নিতে পারবেন।

অবশই পড়ুন: ৮টি রেফার করে টাকা ইনকাম করার অ্যাপ

৮. সোশ্যাল মিডিয়া থেকে ইনকাম:

বর্তমান সময়ে যদি আপনার একটি সোশ্যাল মিডিয়া পেজ বা একাউন্ট থাকে এবং সেখানে যদি ভালো রকমের ফলোয়ার বা লাইকস থেকে থাকে, তাহলে আপনি নানান মাধ্যমে নিজের সোশ্যাল মিডিয়া পেজ থেকে ইনকাম করতে পারবেন।

এক্ষেত্রে আপনি, এফিলিয়েট মার্কেটিং, পেইড প্রমোশন, স্পন্সরড পোস্ট, নিজের পণ্য বিক্রি করার মতো নানান উপায়ে টাকা ইনকাম করার সুযোগ পাবেন।

বিশেষ করে যদি আপনার একটি Instagram account আছে এবং সেখানে যদি কমেও ১০ থেকে ২০ হাজার ব্যক্তি আপনাকে ফলো করছেন, সেক্ষেত্রে নানান কোম্পানি এবং ব্র্যান্ড গুলি সাথে পার্টনারশীপ করে তাদের পণ্য ও পরিষেবা গুলি প্রচার করতে পারেন।

বর্তমান সময়ে এই মাধ্যমে হাজার হাজার Instagram page-এর মালিকেরা অনলাইন থেকে প্রচুর টাকা ইনকাম করে নিচ্ছেন।

৯. অনলাইনে ছবি বিক্রি করুন:

আপনি যদি ছবি তুলতে পছন্দ করেন এবং নিজের মোবাইল বা DSLR ক্যামেরা দিয়ে ছবি তোলার বেসিক কৌশল গুলি জানেন, সেক্ষেত্রে সুন্দর সুন্দর এবং হাই কোয়ালিটি ছবি গুলি তোলার মাধমেও ইন্টারনেট থেকে ইনকাম করতে পারবেন।

তোলা ছবিগুলি বিক্রি কোথায় করবেন? সেটাই ভাবছেন তো?

ইন্টারনেটে এমন নানান স্টক ইমেজ ওয়েবসাইট গুলি পাবেন যেগুলিতে গিয়ে নিজের একটি ফ্রি একাউন্ট তৈরি করে ছবি গুলিকে আপলোড করে বিক্রি করতে পারবেন।

এমনিতে, অনলাইনে ছবি বিক্রি করে টাকা ইনকাম এর বিষয়টি নিয়ে আমি আগেই একটি আর্টিকেল লিখেছি এবং আপনাদের বিষয়টা বিস্তারিত বলেছি।

তাই, এই বিষয়ে বিস্তারিত জানার জন্য আমাদের সেই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়ুন।

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে টাকা আয় করার ক্ষেত্রে আপনারা এই ওয়েবসাইট গুলি ব্যবহার করতে পারবেন:

  • Getty Images,
  • Shutterstock,
  • Adobe Stock,
  • 500px,
  • Etsy,
  • Snapped4U,
  • Fotomoto, এবং আরো আছে।

অনলাইনে কিভাবে টাকা ইনকাম করব? শেষ কথা:

অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করব কিভাবে? বা কিভাবে ইন্টারনেট থেকে টাকা ইনকাম করব? যদি এই ধরণের প্রশ্নগুলি আপনার মাথায় ঘুরছে, সেক্ষেত্রে আমি আপনাদের বলবো যে, ইন্টারনেট থেকে টাকা আয় করার উপায় প্রচুর রয়েছে।

তবে, আমার হিসেবে অনলাইন ইনকামের বাস্তব, রিয়েল, বিশ্বস্ত এবং কার্যকর উপায় নিয়ে বললে উপায়গুলির সংখ্যা কিন্তু অনেকটাই কমে আসবে।

আমার হিসেবে, ইন্টারনেট থেকে রাতারাতি ধনী হওয়ার কোনো উপায় নেই।

কিন্তু, সময় দিয়ে সঠিক ভাবে পরিশ্রম করে কাজ করতে পারলে, blogging, freelancing, affiliate marketing এবং অনলাইনে নিজের কোর্স বানিয়ে বিক্রি করার মতো উপায় গুলি কিন্তু আপনাকে একজন ধনী ব্যক্তিতে পরিণত করার ক্ষমতা রেখে থাকে।

তাই, কিছুতা সময় লাগলে লাগুক, তবে অনলাইন ইনকামের শর্টকাট রাস্তা না খুঁজে সেই উপায় গুলি নিয়েই কাজ করুন যেগুলি অন্যদের ক্ষেত্রেও প্রচুর কার্যকর হিসেবে প্রমাণিত হয়েছে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top